চবি প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২১ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০:০০ | অাপডেট: ২১ এপ্রিল, ২০১৭ ০৩:৩৩:০৫
পরীক্ষায় অংশ নিতে না দেয়ার জের
চবিতে ছাত্রলীগ-পুলিশ সংঘর্ষ : আহত ১৫
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ কর্মী ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত এক ছাত্রকে পরীক্ষা দেয়ার অনুমতি না দেয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগ কর্মীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ও বিশ্ববিদ্যালয় রেলস্টেশনে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়। কেটে নেয় শাটল ট্রেনের হুইসপাইপ। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর সংগঠনের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদ দু’জনকে বহিষ্কার করেছে। বহিষ্কৃতরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের উপদফতর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুল ও সহ-সম্পাদক আবদুল্লাহ আল কায়সার শাকিল।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ৪০১ নম্বর কোর্সের নির্ধারিত পরীক্ষা ছিল বৃহস্পতিবার। এ বর্ষের ছাত্র আবদুল্লাহ আল কায়সার শাকিল গত বছরের ডিসেম্বরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দুই বছরের জন্য বহিষ্কার হন। অন্য ছাত্রদের মতো শাকিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু বিভাগের সভাপতি জানান, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না হলে পরীক্ষার অনুমতি দেয়ার সুযোগ নেই। এরপর শাকিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও চট্টগ্রাম মহানগরের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাকে পরীক্ষার অনুমতির আশ্বাস দেয়া হয়। আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে শাকিল বৃহস্পতিবার পরীক্ষায় অংশ নিতে গেলে তাকে বাধা দেন বিভাগের শিক্ষকরা। এ খবর পেয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ওই বিভাগের সামনে জড়ো হন। বিষয়টি বিভাগের শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানালে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরের বছর পরীক্ষা দেয়ার কথা বললে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বেলা ১১টার দিকে বিভাগ অবরোধ করেন। পুলিশ এসে তাদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে ছাত্রলীগ কর্মীরা সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে অবস্থান নেয়। সেখানে পুলিশ ধাওয়া দিলে দুপুর দেড়টার দিকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এভাবে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় পুলিশসহ ১৫ জন আহত হন। আহত অবস্থায় পুলিশের কনস্টেবল রফিককে চবি মেডিকেল সেন্টারে পাঠানো হয়। ছাত্রলীগের এ অংশটি নগর মেয়র ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছিরের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার নির্ধারিত পরীক্ষা স্থগিত করেছে যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ। পরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার জেরে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তবে পরবর্তী পরীক্ষাগুলো নিয়মানুযায়ী চলবে।

বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আকতারুজ্জামান বলেন, একটি অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার জেরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ওপর হামলা করে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা আমরা সহ্য করব না। যারাই ঝামেলা করুক, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


 
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর
খবর বিভাগের অারও খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by