¦
উন্নতির মূল চাবিকাঠি আইনশৃংখলা

নরসিংদী প্রতিনিধি | প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৫

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, আমাদের অর্থনৈতিক উন্নতির গতিধারার মূল চাবিকাঠি হল দেশের আইনশৃংখলা। বিদেশীরা যখন একটি দেশে বিনিয়োগ করেন তখন তারা সে দেশের আইনশৃংখলা, অবকাঠামো ও বিচারব্যবস্থা বিশ্লেষণ করে দেখেন। তাই দেশে আইনশৃংখলা উন্নতির প্রয়োজন।
বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা আইনজীবী সমিতির উষ্ণ অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মামলাজটের কারণে দেশে বর্তমানে ৩০ লাখ মামলা বিচারাধীন রয়েছে। জজশিপের বিচারক ও বিজ্ঞ আইনজীবীরা যদি বিকালে দ্বিতীয় দফায় কোর্ট করেন তবে এ মামলাগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে। আগামী তিন মাসের মধ্যে বাংলাদেশের সবগুলো আদালতের প্রায় ৪৫% মামলা নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গত তিন মাসে প্রায় ২৬% মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে।
প্রধান বিচারপতি বলেন, জেলা প্রশাসন ও জেলা জজশিপ কেউ কারও প্রতিদ্বন্দ্বী নয়, স্বাধীনভাবে তারা কাজ করে যাচ্ছেন। সঠিকভাবে কাজ করলে ২০১৭ সালের মধ্যেই বাংলাদেশকে একটি উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করা সম্ভব। তাছাড়া নরসিংদীতে বিচারকার্যের সুবিধার্থে নতুন একটি জুডিশিয়াল ভবন নির্মাণের আশ্বাস দেন প্রধান বিচারপতি। তিনি বলেন, পর্যায়ক্রমে দেশের সব আদালতের বিচারকদের শূন্যপদ পূরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আমজাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নরসিংদীর জেলা প্রশাসক আবু হেনা মোরশেদ জামান, জেলা পরিষদ প্রশাসক ও আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদোজ্জামান, প্রবীণ আইনজীবী অ্যাডভোকেট এএম বদরুদ্দোজা জিলু প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী পুলিশ সুপার আমেনা বেগম, সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার সৈয়দ আমিনুল ইসলাম, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাজী নাজমুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট সিরাজ মিয়া, অ্যাডভোকেট নাজমুল কাদের, অ্যাডভোকেট বশিরুল কাদেরসহ জেলার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এর আগে তিনি সকালে নরসিংদী জেলা জজশিপের এবং জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close