ঢাকা    |    
প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৭ ২০:২৬:২৭
বর্তমান প্রধান বিচারপতির প্রশংসা করতে হয়: মওদুদ
বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহার ভূমিকার প্রশংসা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

তিনি বলেন, 'আমাদের বর্তমান প্রধান বিচারপতি, তার প্রশংসা করতে হয়। তিনি চেষ্টা করছেন বিচার বিভাগের স্বাধীনতাটাকে সত্যিকারভাবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য। তার এই প্রচেষ্টা সফল  হোক- এটাই আমরা চাই।'

মওদুদ আহমদ আরও বলেন, 'আমরা ক্ষমতায় গেলে বিচার বিভাগ নিয়ে মানুষের মনে থাকা প্রশ্নগুলোকে বিতাড়িত করে দেব। বিচারক সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করবেন। আইন ব্যক্তির ঊর্ধ্বে থাকবে, প্রতিষ্ঠান ব্যক্তির ঊর্ধ্বে থাকবে। কে সরকারি দল, কে সরকারি দলে নাই- তা না দেখে আইন একইভাবে প্রয়োগ করা হবে।'

বর্তমানের আইনের শাসনকে 'দলীয় শাসন' আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, এখন দুই ধরনের বিচারিক দর্শন চলছে। সরকারি দলের জন্য আইনের একরকম প্রয়োগ আর বিরোধী দলের জন্য অন্যরকমের প্রয়োগ হচ্ছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, 'আদালতের দায়িত্ব আমাদেরকে প্রটেকশন দেয়া, যাতে আমাদেরকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলখানায় যেতে না হয়।'

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত 'দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ঘোষিত ভিশন-২০৩০, আগামী দিনের রাজনীতি ও আমাদের করণীয়' শীর্ষক এত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় 'ভিশন-২০৩০' এ উল্লেখিত বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার অঙ্গীকারসমূহ তুলে ধরেন এ বিএনপি নেতা। তিনি বলেন, 'আমরা চাই সম্পূর্ণভাবে একটি স্বাধীন বিচার বিভাগ।'

আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহেণর বিষয়ে মওদুদ আহমদ বলেন, 'যেকোনো সময়ে নির্বাচনের জন্য আমরা প্রস্তুত আছি। এখানে  দেশের মানুষকে সুযোগ দিতে হবে, ভোটের অধিকার দিতে হবে।'

এজন্য নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের প্রয়োজন মন্তব্য করে তিনি বলেন, 'নির্বাচনের সময়ে এমন একটি সরকার থাকতে হবে, যে সরকারের কোনো রাজনৈতিক অভিলাষ থাকবে না, কোনো রাজনৈতিক স্বার্থ থাকবে না।'

অনুষ্ঠানে মওদুদ অভিযোগ করেন সরকারের প্রভাবশালীদের মদদেই সামাজিক অপরাধ বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, আজকে সামাজিক অপরাধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। প্রত্যেকদিন অপরাধ হচ্ছে, দিনে ১২টি খুন হচ্ছে বাংলাদেশে এখন।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী যেখানে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন, সেই রেইনট্রি হোটেলের মালিক কে? সেটা তো আজকের খবরের কাগজে আবার বেরিয়েছে। দুই শিক্ষার্থী ধর্ষণে ক্ষমতাসীন প্রভাবশালীদের যুক্ত থাকার বিষয়টা আরও বেশি প্রমাণিত হয়েছে।

সংগঠনের সভাপতি আশরাফ উদ্দিন বকুলের সভাপতিত্বে সভায় বিএনপি নেতা অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবু নাসের মো. রহমাতুল্লাহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by