যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২১ এপ্রিল, ২০১৭ ০০:০০:০০
বিক্ষোভে উত্তাল ভেনিজুয়েলা গুলিতে নিহত ৩
সরকারবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে ল্যাটিন আমেরিকার সমাজতান্ত্রিক দেশ ভেনিজুয়েলা। দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলাকালে বুধবার গুলিতে তিনজন নিহত হয়েছেন। রাজধানী কারাকাসসহ বিভিন্ন বড় শহরগুলোতে বিক্ষোভ চলছে।
বৃহস্পতিবার বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ও কারাবন্দি বিরোধী নেতাদের মুক্তির দাবিতে হাজার হাজার মানুষ দেশটির রাস্তায় নেমে আসে। এ সময় মাদুরো সমর্থকদের সঙ্গে বিরোধী দলের সমর্থকদের সংঘর্ষ বাধে। এ সময় তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। নিহতদের মধ্যে দু’জন শিক্ষার্থী ও দেশটির ন্যাশনাল গার্ডের এক সার্জেন্ট রয়েছেন। নিহত দুই বেসামরিকের মধ্যে একজন রাজধানী কারাকাসের তরুণ ও আরেকজন কলম্বিয়া সীমান্তের নিকটবর্তী শহর সান ক্রিস্টোবালের এক নারী। ২০১৪ সালের পর এটিকে ভেনিজুয়েলার সবচেয়ে শক্তিশালী বিক্ষোভ বলে মনে করা হচ্ছে। এ বিক্ষোভের নাম দেয়া হয়েছে ‘মাদার অব অল মার্চেস’।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বুধবার বিরোধীদের একটি সমাবেশ লক্ষ্য করে সশস্ত্র সরকার সমর্থকরা গুলিবর্ষণ করলে ফুটবল খেলতে বাড়ি থেকে বের হওয়া ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থী কার্লোস মোরেনো নিহত হন। মাথায় গুলি লাগার পর জরুরি ভিত্তিতে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়, সেখানে অস্ত্রোপচারের সময় তিনি মারা যান বলে জানিয়েছেন নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। একই দিন সরকারবিরোধী আন্দোলনের অন্যতম কেন্দ্র সান ক্রিস্টোবালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী পাওলা রামিরেজ অজ্ঞাত ব্যক্তিদের ছোড়া গুলিতে নিহত হন। ভেনিজুয়েলার পাবলিক প্রসিকিউটর দফতর জানিয়েছে, উভয় ঘটনা তদন্ত করে দেখছে তারা। উভয় হত্যাকাণ্ডের জন্য সরকার সমর্থক সশস্ত্র গোষ্ঠী ‘কালেকটিভোস’কে দায়ী করেছে বিরোধীরা।
পুলিশের ওপর হামলা ও দোকানপাট লুট করার জন্য বিরোধীদের দায়ী করেছেন প্রেসিডেন্ট মাদুরো। এসব ঘটনায় এ পর্যন্ত ৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। অধিকার আন্দোলন গোষ্ঠী পেনাল ফোরাম জানিয়েছে, বুধবার সারা দেশে মোট ৪০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে গ্রেফতার ও হত্যা সত্ত্বেও বিরোধীরা আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।
বিরোধী দলের নেতৃত্বাধীন এই বিক্ষোভে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর বিরুদ্ধে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার অভিযোগ তোলা হচ্ছে। হুগো শাভেজের এই দেশে এখন মাদুরোর জনপ্রিয়তা তলানিতে। সেই সঙ্গে দেশের অর্থনীতির অবস্থাও খুব খারাপ। বিরোধী দলের সমর্থকরা বলছেন, প্রেসিডেন্ট মাদুরো দেশ থেকে গণতন্ত্রের উচ্ছেদ করছেন এবং তেলসমৃদ্ধ এই অর্থনীতিকে চরম বিপর্যয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন। চলতি মাসে দেশটিতে সরকারবিরোধী আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত আটজন নিহত ও বহু আহত হয়েছেন। হতাহতের এসব ঘটনার জন্য নিরাপত্তা বাহিনী ও কথিত আধা সামরিক গোষ্ঠীগুলোকে দায়ী করেছে বিরোধীরা।
বৃহস্পতিবারও সরকারবিরোধী বিক্ষোভের ডাক দেয় বিরোধীরা। টানা সরকারবিরোধী আন্দোলনের কারণে লম্বা সময় ধরে দেশটিতে অস্থিরতা দেখা দিতে পারে বলে ধারণা করছেন পর্যবেক্ষকরা। বুধবার রাতে বিরোধীদলীয় নেতা হেনরিক ক্যাপ্রিলেস বিক্ষোভের ডাক দিয়ে বলেন, ‘একই জায়গায়, একই সময়। আজকের জমায়েতে দশ লাখ হলে আগামীকাল আরও বেশি হবে।’



  • সর্বশেষ খবর
দশ দিগন্ত বিভাগের অারও খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by