একজন স্ত্রীর ৮-এ ফেরার ইচ্ছে

  আশরাফুল আলম পিনটু ২৯ জুলাই ২০২০, ২০:৪৯:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

এক লোক বিছানার এক পাশে বসে ছিলেন। তাকিয়ে ছিলেন স্ত্রীর দিকে। তার স্ত্রী বসে ছিলেন ড্রেসিং টেবিলের সামনে। আয়নায় দেখছিলেন নিজেকে। অনেকক্ষণ ধরে দেখছিলেন। খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে। মুটিয়ে গেছেন খুব। সামনেই তার জন্মদিন। খুব বেশি দূরে নয়।

স্বামী তার স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলেন, ‘এবার জন্মদিনে তুমি উপহার হিসেবে কী পেতে চাও?’

‘আহা, আবার যদি সেই ৮-এ ফিরে যেতে পারতাম! আমি আবার ৮-এ ফিরে যেতে চাই।’ স্ত্রী জবাব দিলেন।

তখনও তিনি আয়নায় তাকিয়ে ছিলেন নিজের চেহারার দিকে।

স্ত্রীর জন্মদিনের সকালে লোকটি ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠলেন। সকালের নাস্তা হিসেবে ছোটদের পছন্দের খাবার কোকো পপস তৈরি করলেন স্ত্রীর জন্য। বড় পুরো এক বাটি কোকো পপস খেতে দিলেন স্ত্রীকে। নাস্তা খাওয়ার পর স্ত্রীকে নিয়ে বেড়াতে গেলেন একটা অ্যাডভেঞ্চার ওয়ার্ল্ড থিম পার্কে।

কী চমৎকার একটা দিন! লোকটি ভাবলেন। অমন একটা সুন্দর দিন স্ত্রীকে উপহার দিতে পেরে খুব খুশি তিনি। পার্কের প্রতিটি রাইডে স্ত্রীকে চড়ালেন। ডেথ স্লাইড, ভয়ের দেয়াল, মজার রোলার কোস্টার- কোনো কিছুই বাদ রাখলেন না।

৫ ঘণ্টা পর তারা থিম পার্ক থেকে বেরিয়ে এলেন। স্ত্রীর মাথা তখন ঘুরপাক খাচ্ছিল। পেটের সব কিছু যেন উলটে গেছে- এরকমই মনে হচ্ছিল তার। একটু পর স্ত্রীর অবস্থা ভালো হল। লোকটি তাকে নিয়ে গেলেন একটা নামী রেস্তোরাঁয়। ছোটরা পছন্দ করে এমন সব খাবারের অর্ডার দিলেন সেখানে। চকোলেটের পুর দেয়া মচমচে ভাজা খাবার খাওয়ালেন স্ত্রীকে।

খাওয়া-দাওয়ার পর স্ত্রীকে নিয়ে গেলেন সিনেমা দেখাতে। ছোটদের জন্য চমৎকার রূপকথার সিনেমা। সিনেমা দেখার সময় পপকর্ন, আপেল জুস আর ক্যান্ডি কিনে দিলেন স্ত্রীকে।

অবশেষে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি ফিরলেন লোকটি। স্ত্রী তখন রীতিমতো কাঁপছিলেন। ক্লান্ত হয়ে বিছানায় শুয়ে পড়লেন তিনি। ক্লান্তি দূর করতে চোখ বুজলেন। হাসিমুখে স্ত্রীর দিকে ঝুঁকলেন লোকটি। মধুর কণ্ঠে জানতে চাইলেন, ‘আচ্ছা প্রিয়তমা, আবার ৮-এ ফিরে গিয়ে কেমন লাগল তোমার?’

ধীরে ধীরে চোখ খুলে গেল স্ত্রীর। হঠাৎ তার চেহারা বদলে গেল। কপালে ভাঁজ। প্রচণ্ড বিরক্তির সুরে বললেন, ‘হাঁদারাম, আমি বয়সের কথা বলিনি। বলেছিলাম আমার পোশাকের সাইজের কথা। হায় রে, কী ছিলাম, আর কী হলাম!’

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত