একটু না হয় হাসুন
jugantor
একটু না হয় হাসুন

  গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার  

২০ ডিসেম্বর ২০২১, ২২:১৩:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

বস : মতিন সাহেব, আপনাকে ফোন করেছিলাম। আপনার স্ত্রী বলল, আপনি নাকি বাসায় রান্না করছিলেন! কলব্যাক করতে দেরি হলো কেন?
কর্মচারী : স্যার, একটু পরই আমি কলব্যাক করেছিলাম আপনাকে। আপনার স্ত্রী ধরেছিলেন। মেডাম বললেন, আপনি নাকি বাসন মাজছিলেন!

এক ভদ্রলোক একবার দশ টাকার লটারি কিনে চলি­শ লাখ টাকা পেলেন। সেখান থেকে ট্যাক্স কেটে রেখে কর্তৃপক্ষ তাকে দুই লাখ টাকা কম অর্থাৎ আটত্রিশ লাখ টাকা দিলেন। এই দেখে লোকটি রেগে আগুন হয়ে গেলেন। চিৎকার করে বললেন, ‘মশকরা পেয়েছেন আপনারা? আমার পাওনা চলি­শ লাখ টাকার পুরোটা দিন, নয়তো আমার লটারি কেনার দশ টাকা এখনই ফেরত দিন!’

ভিআইপি যাবেন বলে রাস্তায় বিশাল জ্যাম। দুই ঘণ্টা ধরে সব গাড়ি স্থির হয়ে আছে! জ্যামের মধ্যে আটকা পড়ে লোকাল বাসে বসে থাকা এক লোক মেজাজ হারিয়ে ফেললেন। চিৎকার করে বললেন, ‘আমি এক্ষুনি গিয়ে ওই ভিআইপিকে গুলি করে মেরে আসব! আর সহ্য হচ্ছে না!’
কিছুক্ষণ পর ওই লোক ফিরে এলেন। বাস তখনো একই স্থানে দাঁড়ানো। অন্য যাত্রীরা তার কাছে জানতে চাইলেন, ‘কী ব্যাপার ভাই, ওই ভিআইপিকে মেরে এসেছেন নাকি?’
লোকটি এবার শীতল গলায় বললেন, ‘নাহ, ওখানে গিয়ে দেখি তাকে মারার জন্য আরও বড় জ্যাম লেগে গেছে! তাই ফিরে এলাম।’

একটু না হয় হাসুন

 গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার 
২০ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বস : মতিন সাহেব, আপনাকে ফোন করেছিলাম। আপনার স্ত্রী বলল, আপনি নাকি বাসায় রান্না করছিলেন! কলব্যাক করতে দেরি হলো কেন?
কর্মচারী : স্যার, একটু পরই আমি কলব্যাক করেছিলাম আপনাকে। আপনার স্ত্রী ধরেছিলেন। মেডাম বললেন, আপনি নাকি বাসন মাজছিলেন!

এক ভদ্রলোক একবার দশ টাকার লটারি কিনে চলি­শ লাখ টাকা পেলেন। সেখান থেকে ট্যাক্স কেটে রেখে কর্তৃপক্ষ তাকে দুই লাখ টাকা কম অর্থাৎ আটত্রিশ লাখ টাকা দিলেন। এই দেখে লোকটি রেগে আগুন হয়ে গেলেন। চিৎকার করে বললেন, ‘মশকরা পেয়েছেন আপনারা? আমার পাওনা চলি­শ লাখ টাকার পুরোটা দিন, নয়তো আমার লটারি কেনার দশ টাকা এখনই ফেরত দিন!’

ভিআইপি যাবেন বলে রাস্তায় বিশাল জ্যাম। দুই ঘণ্টা ধরে সব গাড়ি স্থির হয়ে আছে! জ্যামের মধ্যে আটকা পড়ে লোকাল বাসে বসে থাকা এক লোক মেজাজ হারিয়ে ফেললেন। চিৎকার করে বললেন, ‘আমি এক্ষুনি গিয়ে ওই ভিআইপিকে গুলি করে মেরে আসব! আর সহ্য হচ্ছে না!’
কিছুক্ষণ পর ওই লোক ফিরে এলেন। বাস তখনো একই স্থানে দাঁড়ানো। অন্য যাত্রীরা তার কাছে জানতে চাইলেন, ‘কী ব্যাপার ভাই, ওই ভিআইপিকে মেরে এসেছেন নাকি?’
লোকটি এবার শীতল গলায় বললেন, ‘নাহ, ওখানে গিয়ে দেখি তাকে মারার জন্য আরও বড় জ্যাম লেগে গেছে! তাই ফিরে এলাম।’
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন