বিপিএল ফাইনাল নিয়ে কুমিল্লা অধিনায়কের ভাবনা

প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস রিপোর্টার

ইমরুল কায়েস

ইনজুরির কারণে গ্রুপপর্বের কয়েকটি ম্যাচ খেলেই অস্ট্রেলিয়ায় চলে যান কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। অস্ট্রেলিয়ান সাবেক এই অধিনায়কের পরিবর্তে কুমিল্লার নেতৃত্বের গুরুদায়িত্ব চলে আসে ইমরুল কায়েসের কাঁধে। জাতীয় দলের এই ওপেনারের নেতৃত্বে ফাইনালে উন্নীত ভিক্টোরিয়ান্স। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরপুর শেরেবাংলায় বিপিএল ষষ্ঠ আসরের ফাইনালের মধ্য দিয়ে আসরের সমাপ্তি হবে। তার আগে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রত্যাশা নিয়ে কথা বলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনাক ইমরুল কায়েস। 

এদিন তিনি বলেন, ফাইনালে যারা পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারবে তারাই সাফল্য পাবে। বেশি এক্সাইটমেন্ট থাকলে আসলে সাফল্যের সুযোগটি কম থাকে। ফাইনাল ম্যাচে সবাই অনেক উত্তেজিত থাকবে। তবে আমরা মাঠে খেলাটাকে উপভোগ করার চেষ্টা করব। সেটা ঠিকমতো করতে পারলে আমার মনে হয় সাফল্যের সুযোগটি বেশি থাকবে।


বিপিএলের সবশেষ পাঁচ আসরের চারবারের ফাইনালে খেলে তিনবার শিরোপা জিতে ঢাকা। আরও একটি ট্রফির সামনে দাঁড়িয়ে বিপিএলের অন্যতম ফেবারিট সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন ঢাকা ডায়নামাইটস। ঢাকাকে হারাতে হলে কি করতে হবে এমন প্রশ্নের জবাবে কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল বলেন, ওদের চেয়ে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে এটাই প্রথম টার্গেট। তাহলেই আমরা হারাতে পারব।

২০১৫ সালে বিপিএলে প্রথমবার ফাইনালে খেলে মাশরাফি বিন মুর্তার নেতৃত্বে শিরোপার স্বাদ পায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। সেই শিরোপা জয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন ইমরুল। এবার তার নেতৃত্বেই আরও একটি ট্রফি জয়ের দুয়ারে কুমিল্লা। 

ফাইনালে নিজেদের আত্মবিশ্বাস নিয়ে অধিনায়ক ইমরুল বলেন, আমি বেশ খুশি যে আমরা প্রথম থেকে ফাইনাল পর্যন্ত বেশ ভালো ক্রিকেট খেলেছি। প্রত্যেক ক্রিকেটার মন থেকে চেয়েছে যে আমরা ফাইনাল খেলব। আসলে ফাইনাল ম্যাচটি ভাগ্যের ব্যাপার। আপনি বলতে পারবেন না যে, সব ম্যাচ জেতার পরেও ফাইনালে জিততে পারবেন। তবে আমরা চেষ্টা করব আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলার। আর সেটা করতে পারলে ইনশাআল্লাহ ফলাফল আসবে।

অধিনায়ক হিসেবে প্রথমবার ট্রফি জয়ের দ্বারপ্রান্তে ইমরুল। এ ব্যাপারে কায়েস বলেন, প্রতিটি খেলোয়াড়ই চায় যে বিপিএলের ফাইনালে খেলতে এবং চ্যাম্পিয়ন হতে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতিটি আমি একবার পেয়েছি। কারণ কুমিল্লায় আমি খেলেছি এর আগে এবং তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। আর হ্যাঁ প্রত্যেক ক্রিকেটারই বেশ এক্সাইটেড যে সেখানে ভালো ক্রিকেট খেলবে, সবাই নিজের থেকে চাচ্ছে যেন নিজের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স সেরাটা দেয়ার জন্য।

উইকেট-সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে ইমরুল বলেন, উইকেট তো আসলে সব সময় প্রত্যাশা করি যে ব্যাটিং উইকেট হবে। ব্যাটসম্যানরা ভালো করবে। একটি স্পোর্টিং উইকেট হলে আমার মনে হয় ফাইনালটি সবাই বেশ উপভোগ করবে।


কুমিল্লার অধিনায়ক আরও বলেন, আমরা তাদের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে দুটি ম্যাচ খেলে দুটিতেই জয় পেয়েছি। আর সেই দুই ম্যাচে তারা চারজন অলরাউন্ডারকেই খেলিয়েছিল। আমাদের দলেও অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। শহীদ আফ্রিদি আছে সে শুরু থেকেই ভালো বোলিং করে আসছে। আমি আশা করি আফ্রিদি ফাইনালে ভালো পারফরম্যান্স উপহার দেবে। 

ঢাকা ডায়নামাইটসের তুলনায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কোন দিকে এগিয়ে। এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরুল বলেন, গ্রুপপর্বে তাদের বিপক্ষে দুই ম্যাচের দুটিতে জয় পেয়েছি।  সেদিক থেকে আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমার কাছে মনে হয় এটা ইতিবাচক দিক।