রাবিতে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রলীগ নেতা জখম
jugantor
ভর্তি জালিয়াতির ফোনালাপ ফাঁস
রাবিতে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রলীগ নেতা জখম

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৯ অক্টোবর ২০১৮, ২২:০০:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ভর্তি জালিয়াতির ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নিজ দলের এক নেতাকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার বিকেলে ক্যাম্পাসের চারুকলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রলীগ নেতার পায়ে গুরুতর জখম হয়েছে। বর্তমানে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
জানা গেছে, হামলার শিকার মার্কেটিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র তারেক আহমেদ খান রাবি ছাত্রলীগের দুর্যোগবিষয়ক সম্পাদক। ঘটনার সময় রাবি ছাত্রলীগের উপপ্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক হাসিবুল হাসান শান্ত, সহসম্পাদক কাউসার ইসলামের নেতৃত্বে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

দলীয় সূত্রে জানা যায় হামলাকারী শান্ত রাবি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকালে চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে দুপুরের খাবার খেতে যান তারেক। এ সময় ছাত্রলীগ নেতা কাউসার তাকে দেখতে পেয়ে সহযোগীদের ফোন করে ডেকে নেন। সেখানে শান্ত ও কাউসারের নেতৃত্বে একদল ছাত্রলীগ ক্যাডার তারেককে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেন। একপর্যায়ে তারেক জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রাবি মেডিকেল সেন্টারে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আঘাতের কারণে তারেকের বাম পায়ের মাংস থেঁতলে গেছে ও হাড় ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

তবে হামলাকারী ছাত্রলীগ নেতা শান্ত ও কাউসার দুজনেই তারেকের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তারা বলেন, ‘আমরা চারুকলায় তারেককে দেখতে পেয়ে তাকে ডাক দিয়ে প্রশ্নফাঁসের রেকর্ডিংয়ে আমাদের নাম কেন বলা হয়েছে তার কাছে জানতে চাই। কিন্তু তারেক আমাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। পরে তার সঙ্গে আমাদের বাগ্বিতণ্ডা হয়। এ সময় তাকে আমরা দুয়েকটি চড়-থাপ্পড় মেরেছি।’

উল্লেখ্য,গত ১৪ অক্টোবর যুগান্তরে তারেক আহমেদ খানের ভর্তি জালিয়াতির ফোন রেকর্ডিং ফাঁস হয়। পরে তাকে ফাঁসানোর জন্য পরিকল্পিতভাবে এই ফোন রেকর্ডিং করা হয়েছে দাবি করে তারেক। এর জন্য তারেক, শান্ত ও কাউসারকে দায়ী করে আসছিলেন। এরই মধ্যে সোমবার হামলার ঘটনা ঘটল।

ভর্তি জালিয়াতির ফোনালাপ ফাঁস

রাবিতে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রলীগ নেতা জখম

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৯ অক্টোবর ২০১৮, ১০:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভর্তি জালিয়াতির ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নিজ দলের এক নেতাকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার বিকেলে ক্যাম্পাসের চারুকলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রলীগ নেতার পায়ে গুরুতর জখম হয়েছে। বর্তমানে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
জানা গেছে, হামলার শিকার মার্কেটিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র তারেক আহমেদ খান রাবি ছাত্রলীগের দুর্যোগবিষয়ক সম্পাদক। ঘটনার সময় রাবি ছাত্রলীগের উপপ্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক হাসিবুল হাসান শান্ত, সহসম্পাদক কাউসার ইসলামের নেতৃত্বে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

দলীয় সূত্রে জানা যায় হামলাকারী শান্ত রাবি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকালে চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে দুপুরের খাবার খেতে যান তারেক। এ সময় ছাত্রলীগ নেতা কাউসার তাকে দেখতে পেয়ে সহযোগীদের ফোন করে ডেকে নেন। সেখানে শান্ত ও কাউসারের নেতৃত্বে একদল ছাত্রলীগ ক্যাডার তারেককে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেন। একপর্যায়ে তারেক জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রাবি মেডিকেল সেন্টারে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আঘাতের কারণে তারেকের বাম পায়ের মাংস থেঁতলে গেছে ও হাড় ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

তবে হামলাকারী ছাত্রলীগ নেতা শান্ত ও কাউসার দুজনেই তারেকের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তারা বলেন, ‘আমরা চারুকলায় তারেককে দেখতে পেয়ে তাকে ডাক দিয়ে প্রশ্নফাঁসের রেকর্ডিংয়ে আমাদের নাম কেন বলা হয়েছে তার কাছে জানতে চাই। কিন্তু তারেক আমাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। পরে তার সঙ্গে আমাদের বাগ্বিতণ্ডা হয়। এ সময় তাকে আমরা দুয়েকটি চড়-থাপ্পড় মেরেছি।’

উল্লেখ্য,গত ১৪ অক্টোবর যুগান্তরে তারেক আহমেদ খানের ভর্তি জালিয়াতির ফোন রেকর্ডিং ফাঁস হয়। পরে তাকে ফাঁসানোর জন্য পরিকল্পিতভাবে এই ফোন রেকর্ডিং করা হয়েছে দাবি করে তারেক। এর জন্য তারেক, শান্ত ও কাউসারকে দায়ী করে আসছিলেন। এরই মধ্যে সোমবার হামলার ঘটনা ঘটল।