মাথায় সাদা কাফনের কাপড় বেঁধে হাবিপ্রবির শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি

  দিনাজপুর প্রতিনিধি ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:২২ | অনলাইন সংস্করণ

মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে অবস্থান কর্মসূচি হাবিপ্রবির নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্ত শিক্ষকদের

মুখে কালো কাপড় বাঁধার পর এবার মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেছেন দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্ত শিক্ষকরা।

বেতন বৈষম্যের প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে লাঞ্ছিত ও হামলার শিকারের প্রতিবাদে দ্বিতীয় কর্মদিবসেও রোববার ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করে নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্ত ৬১ জন শিক্ষক।

আন্দোলনরত শিক্ষকরা ঘোষণা দিয়েছেন-শিক্ষকদের উপর হামলাকারীদের বিচার ও নিয়ম অনুযায়ী বেতন প্রদান না করা হলে কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে এবং কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি পালন করা হবে। সোমবারের মধ্যে দাবি মেনে না হলে মঙ্গলবার থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করার ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে মুখে কালো কাপড় বেধে তারা এই অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন। কর্মসূচির দ্বিতীয় কর্মদিবসে রোববার সকাল থেকে শিক্ষকরা ক্লাশ-পরীক্ষা বর্জন করে মাথায় সাদা কাফনের কাপড় বেঁধে অবস্থানেই রয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ফাতিহা ফারহানা, হাফিজ আল হোসেনসহ অন্যান্য শিক্ষকরা অভিযোগ করেন, গত ১১ অক্টোবর রিজেন্ট বোর্ডের সভায় তাদের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি করা হয়। কিন্তু পদোন্নতি দেয়া হলেও পদ অনুযায়ী বর্ধিত বেতন দেয়া হচ্ছিল না বিশ্ববিদ্যালয়ে পদোন্নতি পাওয়া ৬১ জন শিক্ষককে।

এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ও কারণ জানতে গত বুধবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. বিধান চন্দ্র হাওলাদারের কক্ষে প্রবেশ করেন ৬১ জন শিক্ষক। কথা চলাকালীন সময়ে সিনিয়র শিক্ষকরা তাদের ধাক্কা দিয়ে কক্ষ থেকে বের করে দেন। এর পর সিনিয়র শিক্ষকদের ইঙ্গিতে কতিপয় ছাত্র তাদের লাঞ্ছিত ও মারধর করে।

আন্দোলনরত শিক্ষকদের নেতৃত্বদানকারী সহকারী অধ্যাপক কৃষ্ণ চন্দ্র রায় জানান, যাদের মদদপুষ্ট হয়ে তাদের উপর হামলা হয়েছে তাদের অবশ্যই বিচার হওয়া প্রয়োজন, এটা শিক্ষকদের দাবি। ন্যায্য বেতন পাওয়া শিক্ষকদের অধিকার, আর সম্মান সম্মুন্নত রাখতে প্রয়োজনে জীবন দিয়ে হলেও রক্ষা করা হবে। শিক্ষকদের প্রতীকী কর্মসূচি আগামী সোমবার পর্যন্ত চালানো হবে। এর মধ্যে দাবি মেনে না হলে আগামী মঙ্গলবার থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করা হবে।

এদিকে ৬১ শিক্ষকের আন্দোলনের ব্যাপারে হাবিপ্রবির রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. সফিউল আলম জানান, সহকারী অধ্যাপকদের দাবিটি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের নিয়ম মোতাবেক তাদেরকে বেতন প্রদান করা হচ্ছে।

শিক্ষকদের উপর হামলার ব্যাপারে তিনি জানান, সহকারী অধ্যাপকদের উপর কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। বরং ওইসব সহকারী শিক্ষকরাই সিনিয়র শিক্ষকদের উপর তেড়ে এসে ধাক্কাধাক্কি করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×