রাবিতে দুই বিভাগ একীভূতকরণ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান

  রাজশাহী ব্যুরো ২০ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:৫২ | অনলাইন সংস্করণ

রাবিতে দুই বিভাগ একীভূতকরণ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান
রাবিতে দুই বিভাগ একীভূতকরণ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান। ছবি-যুগান্তর

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ফলিত রসায়ন এবং রসায়ন প্রকৌশল (এপিইই) বিভাগের নাম পরিবর্তন করে ইইই করার দাবির পক্ষে ও বিপক্ষে মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছেন দুই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য বরাবর বিভাগ একীভূতকরণ না করার দাবি জানিয়ে স্মারকলিপি দেয়া হয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভবনের সামনে মানববন্ধন করে ইলেকট্রনিক অ্যান্ড ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বিজ্ঞান ভবনের মাঝামাঝি স্থানে অবস্থান নেন তারা।

গত আট দিন ধরে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করছে ফলিত রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

প্রতিদিনের মতো আজকেও তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন।

ইইই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, দেশের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে তিন বছর আগে ইইই এ বিভাগটি রাবিতে নতুন চালু হয়েছে।

চালুর পর থেকে আমরা মেধার ভিত্তিতে ভর্তি হই। দুই বিভাগের সিলেবাস এক নয়।

তাই দুই বিভাগকে একত্রকরণ অযৌক্তিক বলে দাবি করেন তারা।

তবে এপিইই বিভাগের সঙ্গে ইইই বিভাগ একত্রকরণ করা হলে আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন তারা।

অন্যদিকে এপিইই বিভাগের শিক্ষার্থীরা জানান, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই বিভাগকে একত্রকরণ করা হলেও রাবিতে কেন হবে না।

আর দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন তারা।

এদিকে ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর মো. আরিফুল ইসলাম নাহিদ জানান, বিভাগের একাডেমিক মিটিং সিদ্ধান্ত নিয়ে দুই বিভাগকে একত্রকরণের দাবি জানিয়ে রেজিস্ট্রার বরাবর আবেদন দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. আবু জাফর মু. তৌহিদুল ইসলাম জানান, দেশের প্রয়োজনে ইউজিসি অনুমোদনসাপেক্ষে রাবিতে ইইই বিভাগ খোলা হয়েছে।

এর সঙ্গে অন্য বিভাগকে সমকক্ষ মনে করাটা একেবারেই অযৌক্তিক। এমনকি দুই বিভাগকে একত্রকরণ করাটা ঠিক হবে না বলে মনে করেন তিনি।

মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে আন্দোলনের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর প্রফেসর ড. লুৎফর রহমান যুগান্তরকে বলেন, আন্দোলনরত দুই বিভাগের শিক্ষার্থীদেরই ক্লাসে ফিরে যাওয়ার জন্য বলেছি।

কারণ এটি দীর্ঘমেয়াদি প্রক্রিয়া। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ বিষয়ে অচিরেই সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানান তিনি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×