চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বোমা’, অভিযানে মিলল বেগুন!

  চবি প্রতিনিধি ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৩২ | অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বোমা’, অভিযানে মিলল বেগুন!
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বোমা, অভিযানে মিলল বেগুন। ছবি: যুগান্তর

রাত তখন আনুমানিক ১০টা। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের সামনে বোমা- এমন খবরে পুরো ক্যাম্পাসে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই স্থানটি ঘিরে ফেলে। কিন্তু প্রায় ১২ঘণ্টা পর অভিযানে মিলল একটি বেগুন। অথচ বোমাসদৃশ্য এই বেগুনটিই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, ছাত্র-শিক্ষক ও পুলিশের রাতের ঘুম হারাম করে দিয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে।

আইন অনুষদ ভবনের সামনে থেকে বোমাসদৃশ টেপ মোড়ানো একটি বেগুন উদ্ধার করা হয়েছে। যদিও বিষয়টি একেবারেই ভুয়া প্রমাণিত হয়েছে প্রস্তুতকারকদের স্বীকারোক্তির পর। অনেকটা নাটকীয়ভাবে ঘটেছে ঘটনাটি।

বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের সামনে বোমা পড়ে আছে এমন সংবাদে তৎক্ষণিক পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা চলে আসেন। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে আশপাশের এলাকা ও শিক্ষার্থীদের মাঝে। এলাকাটি অবরুদ্ধ করে রাখার পর শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে বোম্ব ডিসপোজাল টিম ঘোষণা করে এটি বোমা নয়। এটি বেগুন।

তবে হাজারো আতঙ্ক থাকলেও বিষয়টি কী ছিল তা পরিষ্কার হয় সব নাটকীয়তার পরে। আইন অনুষদে ইউএসএইড এবং চবি আইন অনুষদের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত মক ট্রায়াল (ছায়া/প্রতিকী বিচার) টুর্নামেন্টের এক ট্রায়ালে আসামির উদ্ধারকৃত বোমা আদালতের সামনে কীভাবে উপস্থাপন করা হয়। বেগুন স্কচটেপ আর দুটি তার দিয়ে সেটার ডেমো দেখানো হয়। পরবর্তীতে বিকালে প্রোগ্রাম শেষ হলে এগুলো বাইরে ফেলে চলে যায় শিক্ষার্থীরা। আর এতেই শুরু হয় ‘বোমা’ কাহিনী। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে আতঙ্কে থাকা শিক্ষার্থীদের। কর্তৃপক্ষের অবহেলাকে দায়ী করেছেন তারা।

ওই প্রেগ্রামে অংশ নেয়া কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, আসলে এ রকম অনেক সেমিনার প্রতিযোগিতা আমাদের বিভাগে এর আগেও হয়েছে। তবে বিষয়টি যে এভাবে আতঙ্কের কারণ হবে হয়তো কেউ ভাবিনি। তাই এমন হয়েছে। এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে শুক্রবার রাতে আইন অনুষদে বোমা পড়ে আছে এমন কথা ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গে ওই এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ। আশে পাশের মানুষ বা সিসিটিভি দেখে কিছু পাওয়া না গেলেও ধূম্রজাল ছড়ায় সবত্রই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সরব উপস্থিতিতে। ঘটনার শেষটা হয় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যদের উপস্থিতিতে। এতে সিএমপির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের পাঁচ সদস্যের টিম অংশ নেয়।

নিষ্ক্রিয়করণের পর হাটহাজারী মডেল থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, কেউ বেগুন দিয়ে বোমা তৈরি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে এ কাজ করেছে। এটি নিয়ে আতঙ্কের কিছুই নেই। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, এ রকম একটি বিষয়ের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। পরে সিএমপির বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে বিষয়টি অবহিত করি। তারা শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে এসে নিশ্চিত করেন এটি কোনো বোমা নয়, একটি বেগুনকে কালো টেপ দিয়ে পেঁচিয়ে বোমাসদৃশ বানানো হয়েছে। ক্যাম্পাসে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে কেউ এমনটা করেছে।

আরও পড়ুন
--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর
-

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×