সোমবার পর্যন্ত ঢাবি প্রশাসনকে নুরের আলটিমেটাম

প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

বৈঠক শেষে বক্তব্য রাখছেন নুরুল হক। ছবি: যুগান্তর

হামলার বিচার এবং হল থেকে বহিরাগতদের বিতাড়নের জন্য সোমবার পর্যন্ত ঢাবি প্রশাসনকে সময় বেঁধে দিয়েছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

এর মধ্যে দাবি পূরণ না হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভিপি নুর। 

বুধবার শিক্ষক লাউঞ্জে ঢাবি ভিসি ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে বৈঠক শেষে ভিপি নুর এসব কথা জানান।  

তিনি বলেন, ছাত্রদের বিভিন্ন আন্দোলনে ছাত্রলীগের চিহ্নিত কিছু সন্ত্রাসী বারবার হামলা চালিয়েছে। এসব হামলার কোনো বিচার না হওয়ায় তারা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তাই ভিসির কাছে আমি তাদের বিচারের দাবি জানিয়েছি।

এছাড়া গতকাল এসএম হলে বিচার চাইতে গিয়ে আমরা হামলা শিকার হয়েছি। আমাদের বোনেরা লাঞ্চিত হয়েছে। সারারাত অবস্থানের পর সকালে ভিসি স্যার আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন।

ভিসির কাছে আমরা এসব হামলায় বিচারের দাবি জানিয়েছি। পাশাপাশি প্রত্যেকটি হল থেকে অছাত্র ও বহিরাগত বের করে আবাসিক শিক্ষার্থীদের রুমে তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছি।

এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন শিক্ষার্থী কোন রুমে থাকে, তার ডেটাবেজ তৈরি করে তা অনলাইনে দিয়ে দেয়া। যাতে আমরা সহজেই বের করতে পারি যে কোন শিক্ষার্থী কোন রুমে থাকেন।

নুর বলেন, আমরা আমাদের দাবি পূরণে সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছি। ভিসি সোমবারের মধ্যেই আমাদের সব দাবি-দাওয়া পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন।

সোমবারের মধ্যে আমাদের দাবি পূরণ না হলে পরবর্তীতে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানান ভিপি নুর।

এর আগে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাবির শিক্ষক লাউঞ্জে এ বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে ভিপি নুর ছাড়াও সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন, শামসুন নাহার হলের ভিপি তাসনিম আফরোজ ইমি, কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা রাশেদ খান ও ফারুকসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত সোমবার সন্ধ্যায় এক ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করার বিচার দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএম হলে গেলে ভিপি নুরসহ অন্য শিক্ষার্থীরা অবরুদ্ধ ও লাঞ্ছিত হন।

গতকাল রাত ৮টা থেকে ওই ঘটনায় জড়িতদের বহিষ্কারসহ আরও কয়েকটি দাবিতে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেয় ভিপি নুরসহ কোটা সংস্কার আন্দোলনের শিক্ষার্থীরা।

এদিন রাত সাড়ে ১২টায় ঘটনাস্থলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর গোলাম রাব্বানী এসে ভিসির বাসভবনের সামনে থেকে সরে যার যার অবস্থানে ফিরে যেতে অনুরোধ করেন।

তবে ভিসি এসে অভিযুক্তদের বিচারের আশ্বাস না দিলে অবস্থান থেকে নড়বেন না বলে জানান আন্দোলনকারীরা।