জাবিতে সিনিয়রের থাপ্পড়ে কান ফাটল জুনিয়রের

  জাবি প্রতিনিধি ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ২১:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থীকে দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী থাপ্পড় মেরে কান ফাটিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার রাত আড়াইটার দিকে মওলানা ভাসানী হলের ১১৪নং রুমে এ ঘটনা ঘটে।

র‌্যাগিংয়ের শিকার শিক্ষার্থীর নাম মোশাররফ হোসেন। সে রসায়ন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। তার বরাদ্দ করা শহীদ রফিক জব্বার হলেও সে মওলানা ভাসানী হলের গণরুমে থাকেন। তবে কান ফাটার বিষয়ে মুখ খুলতে রাজি হননি তিনি।

গণরুমের শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাতে মওলানা ভাসানী হলের গণরুমে যান হলটির ৪৭ ব্যাচের একদল শিক্ষার্থী। এ সময় তারা ৪৮ ব্যাচের সব শিক্ষার্থীকে ১১৪নং রুমে একত্র হতে বলেন।

এই রুমেই নিয়মিতই প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের র‌্যাগ দেয়া হয়। পরে তুচ্ছ কারণে ৪৮ ব্যাচের অনেক শিক্ষার্থীকে গালাগাল ও মারধর করা হয়। একপর্যায়ে পরিচয় দিতে ভুল করায় মশাররফকে বাংলা বিভাগ ৪৭ ব্যাচের জাহিদ হাসান তুহিন মারধর করেন।

মারধরের পর তাকে ১১৩নং রুমে পাঠানো হয়। পরে সে পুনরায় ১১৪নং রুমে এসে ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের জানান যে, সে অসুস্থবোধ করছে। এরপর বাংলা বিভাগ ৪৭ ব্যাচের মো. নজরুল তাকে পুনরায় মারধর করেন।

এতে তার বাম কান ফেটে রক্ত বের হতে থাকে। এরপর ৪৭ ও ৪৮ ব্যাচের কয়েকজন শিক্ষার্থী তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যায়। মশাররফ ছাড়াও এ সময় ৫-৬ জনকে মারধর করা হয়েছে বলে জানা যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, বুধবার রাত ৩টার দিকে ১০-১২ জন ছেলে একটা ছেলেকে মেডিকেলে নিয়ে আসে। তার বাম কানের বাইরের অংশে ছিলে গেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পাঠিয়ে দিয়েছি। এছাড়া তাকে একজন বিশেষজ্ঞকে দেখানোর পরামর্শ দিয়েছি।

মারধরকারী তুহিন যুগান্তরকে বলেন, আমি মারধরের বিষয়ে কিছু জানি না।

মওলানা ভাসানী হলের প্রাধ্যক্ষ নাজমুল হাসান তালুকদার বলেন, আমি বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি। যদি র‌্যাগিংয়ের ঘটনা ঘটে তবে আমরা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেব।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, এ ঘটনাটি হল প্রশাসন বিচার করবে। হল প্রশাসন চাইলে আমরা প্রয়োজনে সর্বাত্মক সহযোগিতা করব।

এর আগে গতমাসে মীর মশাররফ হোসেন হলের তৃতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী র‌্যাগিংয়ের শিকার হয়ে কান ফেটেছে বলে প্রক্টর বরাবর অভিযোগ করেন। এই অভিযোগটি এখন প্রক্টর অফিসে তদন্তাধীন রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর
-

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×