৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:২৭ | অনলাইন সংস্করণ

আন্দোলনে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা
আন্দোলনে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। ফাইল ছবি

পাঁচ দফা দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আজকের মতো স্থগিত করা হয়েছে।

বুধবার ঢাবি প্রক্টর গোলাম রাব্বানীর আশ্বাসে এই আন্দোলন স্থগিত করা হয়।

ঢাবি প্রক্টর আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আলোচনায় বসে সমস্যা সমাধানের কথা বলেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সাত কলেজের একটি প্রতিনিধিদল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে তাদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলোচনায় বসবে।

এর পর আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিস্তারিত জানাবেন। সে পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করেন শিক্ষার্থীরা।

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যে কিছু দাবি মেনে নিয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে, পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে সব বিষয়ের ফল প্রকাশ করার ব্যাপারে ইতিমধ্যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

যেসব বিষয়ে অধিক হারে অকৃতকার্য হয়েছে, সেসব বিষয়ে আবেদনক্রমে পুনঃমূল্যায়নের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাত কলেজের অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ইতিমধ্যে প্রশাসনিক ভবনে স্বতন্ত্র সেল গঠন করা হয়েছে। ভবিষ্যতে সাত কলেজের জন্য স্বতন্ত্র নতুন ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে।

অধিভুক্ত সাত কলেজের সেশনজট নিরসনকল্পে ক্রাশ প্রোগ্রাম বিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

২০১৬ সালের ৪র্থ বর্ষ অনার্স পরীক্ষার ফল ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে।

ডিগ্রি ১ম বর্ষ ২০১৭ পরীক্ষার রুটিন ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে। এ ছাড়া মাস্টার্স ২০১৬ অনলাইনে ফরম পূরণ ও অনার্স ২য় বর্ষ পরীক্ষা শুরুর তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

এ ছাড়া আগামী ২৮ এপ্রিল ঢাবি উপাচার্যের সভাপতিত্বে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের সঙ্গে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানকল্পে করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

এর আগে বুধবার বেলা ১১টার দিকে দ্বিতীয় দিনের মতো নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করেন সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের পাঁচ দফা দাবি হচ্ছে- পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ত্রুটিমুক্ত ফল প্রকাশসহ একটি বর্ষের সব বিভাগের ফল একসঙ্গে প্রকাশ; ডিগ্রি, অনার্স ও মাস্টার্সের ফলে গণহারে অকৃতকার্য হওয়ার কারণ প্রকাশসহ খাতার পুনঃমূল্যায়ন; সাত কলেজ পরিচালনার জন্য স্বতন্ত্র প্রশাসনিক ভবন; প্রতি মাসে প্রতিটি কলেজে প্রত্যেক বিভাগে দুদিন করে ১৪ দিন ঢাবির শিক্ষকদের ক্লাস নেয়া এবং সেশনজট নিরসনে একাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রকাশসহ ক্রাশ প্রোগ্রাম চালু করা।

প্রসঙ্গত শিক্ষার মানোন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, সরকারি বাঙলা কলেজকে ঢাবির অধিভুক্ত করা হয়।

ওই বছর পরীক্ষার রুটিনের দাবিতে আন্দোলনে গিয়ে দুই চোখ হারান তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমান। শুরু থেকেই এই অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলন করে আসছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর
-

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×