জাবির মহাপরিকল্পনা ঘিরে সংগঠিত হচ্ছেন ভিসিবিরোধী শিক্ষকরা

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ২৩:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

  জাবি প্রতিনিধি

‘শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চ’ এর সংবাদ সম্মেলন

বিভিন্ন ইস্যুতে আন্দোলন করে বরাবর ব্যর্থ হওয়ার পর আবারও সংগঠিত হচ্ছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যবিরোধী শিক্ষকরা।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের মহাপরিকল্পনাকে ঘিরে বামপন্থী শিক্ষক শিক্ষার্থীদের জোট ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চ’র সাম্প্রতিক আন্দোলন ও কর্মসূচিকে সমর্থন জানিয়েছেন তারা।

রোববার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা মানবিকী অনুষদের লাউঞ্জে ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চ’ এর সংবাদ সম্মেলনে একত্রিত হন আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের একাংশ ও বিএনপিপন্থী শিক্ষক যারা ভিসিবিরোধী শিক্ষকদের সংগঠন ‘সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ’ এর নেতৃত্বস্থানীয় পদে রয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে প্রণীত ‘মহাপরিকল্পনা’কে অস্পষ্ট, অসম্পূর্ণ ও অবিবেচনাপ্রসূত উল্লেখ করা হয়। 

এ ছাড়া এই পরিকল্পনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ-প্রকৃতি ও পরিবেশের সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলেও অভিহিত করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এই মহাপরিকল্পনা পুনঃবিবেচনাসহ সাত দফা দাবি পেশ করেন। দাবি আদায় না হলে কঠোর কর্মসূচিরও হুশিয়ারি দেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ভিসিবিরোধী ও আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের একাংশের সভাপতি জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আবদুল জব্বার হওলাদার, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক খবির উদ্দিন, সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার হাসান মাহমুদ।

বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের মধ্যে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সোহেল রানা, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন, অধ্যাপক মো. নূরুল ইসলাম এবং বামপন্থীদের মধ্যে অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া, সহযোগী অধ্যাপক রায়হান রাইন প্রমুখ বক্তব্য দেন। 

সেখানে ভিসিবিরোধী সব গ্রুপের অন্তত ১৪ শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বামপন্থী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এই মঞ্চের ব্যানারে নানা কর্মসূচি পালন করলেও রোববারের সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেন বিএনপি ও আওয়ামীপন্থী শিক্ষকরা।

তবে মঞ্চের মুখপাত্র রায়হান রাইন সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপি ও আওয়ামীপন্থী শিক্ষকরা তাদের কর্মসূচিতে সংহতি জানাতে উপস্থিত হয়েছেন।

এর আগে আওয়ামীপন্থীদের একাংশ, বিএনপি ও বামপন্থীরা মিলে ‘সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ’ এর ব্যানারে ভিসিবিরোধী আন্দোলন করেছেন। আন্দোলনকারী আওয়ামী গ্রুপের শীর্ষ কয়েক নেতা ও তাদের অনুসারী নিয়ে ভিসির সঙ্গে একত্রিত হন। ফলে ভিসি বিরোধী আন্দোলনের জৌলুস হারিয়ে ফেলে ‘সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ’।

বিগত কয়েক মাস ভিসিবিরোধী গ্রুপগুলো কোনো কর্মসূচি না দিলেও ‘মাস্টারপ্লান’ নিয়ে আবারও তারা একত্রিত হয়ে আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন এই সংবাদ সম্মেলন থেকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্যবিরোধী শিক্ষকদের নেতা অধ্যাপক খবির উদ্দিন বলেন, ‘ব্যক্তি স্বার্থ ব্যতিত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থে যে কোনো কর্মসূচিকে আমরা সমর্থন জানাবো।’

তিনি জানান, সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের ব্যানারেও নতুন কর্মসূচির আহ্বান করা হবে।