যে কারণে মৃত্যু হুমকিতে ভুগছেন বাকৃবির এই ছাত্র

  যুগান্তর ডেস্ক ১১ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

ধর্মান্তরিত বাকৃবি ছাত্র আবু বকর
ধর্মান্তরিত বাকৃবি ছাত্র আবু বকর

তার নাম ছিল বাসুদেব চন্দ্র দাস, এখন মো. আবু বকর সিদ্দিক। আর এ কারণে মৃত্যু হুমকিতে ভুগছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) এই ছাত্র।

তার ধর্মান্তরিত হওয়ার খবর প্রকাশ হওয়ার পর থেকে জীবন নিয়েই সংশয়ে রয়েছেন।

ক্যাম্পাসে নিরাপদে চলাফেরা করতে পারছেন না। পড়াশোনাও বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম তার।

জানা গেছে, প্রায় ছয় বছর আগে ইসলামের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ধর্মান্তরিত হন বাসু দেব। তবে সে কথা জানা ছিল না পরিবারের। গত জুন মাসে জেলা ময়মনসিংহের নোটারী পাবলিক সম্মুখে ধর্মান্তরিত হওয়ার বিষয়ে এফিটডেবিট করেন বাসু দেব। নিজের নাম রাখেন মো আবু বকর।

এরপরই বাকৃবিসহ তার পরিবার জেনে যায় বিষয়টি।

বাকৃবি সূত্রের খবর, ছেলের ধর্মান্তরিত হওয়ার খবর জানার পর গত শনিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে মাইক্রোবাস নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসেন আবু বকরের বাবা ও চাচা ।

এসময় বাকৃবি সনাতন সংঘের কয়েকজন শিক্ষার্থী শাহজালাল হলের সামনে থেকে আবু বকরকে জোড়পূর্বক মাইক্রোবাসে তুলে দেয়।

পরিবারের বিরুদ্ধে আবু বকরের অভিযোগ, বাড়িতে নিয়ে ফের সনাতন ধর্মে ফিরে আসতে বাবাসহ পরিবারের লোকজনরা চাপ প্রয়োগ করে আবু বকরকে। এ নিয়ে তাকে হুমকি ধমকিও দেয়া হয়।

কিন্তু পরিবারের কারও কথায় কান না দিয়ে আবু বকর পরদিন দুপুরে বাড়ি থেকে পালিয়ে মঙ্গলবার বাকৃবি ক্যাম্পাসে চলে আসেন। বর্তমানে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানান নওমুসলিম আবু বকর।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক বলেন, আবু বকরের ভাষ্য, সে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তাই তাকে ময়মনসিংহ কোতয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে বলেছি আমরা।

তার নিরাপত্তার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পূর্ণ সহযোগিতা করবে বলে জানান প্রক্টর ।

উল্লেখ্য, নওমুসলিম মো. আবু বকর সিদ্দিক বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ২য় বর্ষের ছাত্র। তিনি শাহজালাল হলের আবাসিক শিক্ষার্থী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর
-

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×