পুকুরে পড়া মোবাইল খুঁজতে নেমে রুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যু
jugantor
পুকুরে পড়া মোবাইল খুঁজতে নেমে রুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  রাজশাহী ব্যুরো  

৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:২১:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

পুকুরের পাড়ে মোবাইলে সেলফি তুলছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন তাজ (২৩)।

তখন তার ফোনটি পানিতে পড়ে যায়। ফোন খুঁজতে তিনি পানিতে নামেন। কিন্তু আর উঠতে পারেননি। গভীর পানিতে তলিয়ে গিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

মহিউদ্দিন তাজ রুয়েটের ইলেক্ট্রনিক অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের ১৫তম ব্যাচের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তিনি নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার কয়রা গ্রামের এনামুল হকের ছেলে। মহিউদ্দিন তাজ রুয়েটের জিয়াউর রহমান হলের ৪১৮ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

নগরীর মতিহার থানার ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, রুয়েটের ভেতরে পুকুরপাড়ে দুপুরে সেলফি তুলতে গিয়ে মোবাইল পড়ে যাবার পর তাজ প্রথমে একবার পানিতে নামেন। ফোন না পেয়ে উঠে আসেন। কিছুক্ষণ পর আবার নামেন। এবার তিনি পুকুরের মাঝের দিকে যান। এতেই গভীর পানিতে তিনি তলিয়ে যান।

ওসি আরও জানান, তাজ পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সময় পুকুর তিনজন ব্যক্তি মাছ ধরছিলেন। তারাই গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। এ সময় তাকে রুয়েটের অ্যাম্বুলেন্সে করে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি বলেন, তাজের লাশ হাসপাতালের মর্গেই আছে। পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। তারা আসার পর লাশ হস্তান্তর করা হবে। আর এ নিয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হবে বলেও জানান তিনি।

পুকুরে পড়া মোবাইল খুঁজতে নেমে রুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যু

 রাজশাহী ব্যুরো 
৩০ জানুয়ারি ২০২০, ০৬:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি: সংগৃহীত

পুকুরের পাড়ে মোবাইলে সেলফি তুলছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন তাজ (২৩)।

তখন তার ফোনটি পানিতে পড়ে যায়। ফোন খুঁজতে তিনি পানিতে নামেন। কিন্তু আর উঠতে পারেননি। গভীর পানিতে তলিয়ে গিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

মহিউদ্দিন তাজ রুয়েটের ইলেক্ট্রনিক অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের ১৫তম ব্যাচের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তিনি নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার কয়রা গ্রামের এনামুল হকের ছেলে। মহিউদ্দিন তাজ রুয়েটের জিয়াউর রহমান হলের ৪১৮ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

নগরীর মতিহার থানার ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, রুয়েটের ভেতরে পুকুরপাড়ে দুপুরে সেলফি তুলতে গিয়ে মোবাইল পড়ে যাবার পর তাজ প্রথমে একবার পানিতে নামেন। ফোন না পেয়ে উঠে আসেন। কিছুক্ষণ পর আবার নামেন। এবার তিনি পুকুরের মাঝের দিকে যান। এতেই গভীর পানিতে তিনি তলিয়ে যান।

ওসি আরও জানান, তাজ পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সময় পুকুর তিনজন ব্যক্তি মাছ ধরছিলেন। তারাই গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। এ সময় তাকে রুয়েটের অ্যাম্বুলেন্সে করে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি বলেন, তাজের লাশ হাসপাতালের মর্গেই আছে। পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। তারা আসার পর লাশ হস্তান্তর করা হবে। আর এ নিয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হবে বলেও জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন