রাবি ছাত্রলীগ নেতার কক্ষে ডেকে ২ শিক্ষার্থীকে পিটুনি
jugantor
রাবি ছাত্রলীগ নেতার কক্ষে ডেকে ২ শিক্ষার্থীকে পিটুনি

  রাজশাহী ব্যুরো  

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:০৬:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগ সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কুসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের ২২৫নং কক্ষে সমঝোতা বৈঠকে ডেকে মারধরের এ ঘটনা ঘটে।

আক্রান্তরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের আল আকাবা সুহার্ত এবং দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ফরিদ হাসান এম শামীম।

একই বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের তৌহিদুর রহমান বাপ্পী, রিয়াব হোসেন, আলিনুর বাদশা, নজীব হোসেন, দিপু চন্দ্র রায়, আবু বকর সিদ্দিক রিমু এবং রাবি শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কুর বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ উঠেছে।

মারধরের বিষয়ে ভুক্তভোগী সুহার্তর অভিযোগ, বন্ধুদের একে অপরের রেষারেষির ঘটনায় একটু মনোমালিন্য এবং ধাক্কাধাক্কি হয় সম্প্রতি। সেটি সমাধানের জন্য বিভাগের বড় ভাই ও ছাত্রলীগের সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কু তার রুমে সবাইকে ডাকেন। তবে বাপ্পী, আর দুজন বন্ধু মিলে ফরিদকে মারধর শুরু করে। সেখানে সমঝোতা বৈঠক হওয়ার সময় অভিযুক্তরা দুই ছাত্রকে চাপাতির উল্টো পাশ দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। আহতরা চিকিৎসা নিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ফরিদ বলেন, সমঝোতার কথা বলে ছাত্রলীগ নেতার আশ্রিতরা পিটিয়েছে সুহার্তকে। তাকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে তাকেও পেটানো হয়।

এ অভিযোগ প্রসঙ্গে রাবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি কিস্কু জানান, বিভাগের কয়েকজন ছোট ভাই গোলমাল করেছিল। সেটাই তিনি মিটমাট করে দিতে সবাইকে ডেকেছিলেন। তারা আমার কক্ষে মারামারি শুরু করে। ফলে তাদের কয়েকটা চড়থাপ্পড় দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেনি বলে জানিয়েছেন মতিহার থানার ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ।

রাবি ছাত্রলীগ নেতার কক্ষে ডেকে ২ শিক্ষার্থীকে পিটুনি

 রাজশাহী ব্যুরো 
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগ সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কুসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের ২২৫নং কক্ষে সমঝোতা বৈঠকে ডেকে মারধরের এ ঘটনা ঘটে।

আক্রান্তরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের আল আকাবা সুহার্ত এবং দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ফরিদ হাসান এম শামীম।

একই বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের তৌহিদুর রহমান বাপ্পী, রিয়াব হোসেন, আলিনুর বাদশা, নজীব হোসেন, দিপু চন্দ্র রায়, আবু বকর সিদ্দিক রিমু এবং রাবি শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কুর বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ উঠেছে।

মারধরের বিষয়ে ভুক্তভোগী সুহার্তর অভিযোগ, বন্ধুদের একে অপরের রেষারেষির ঘটনায় একটু মনোমালিন্য এবং ধাক্কাধাক্কি হয় সম্প্রতি। সেটি সমাধানের জন্য বিভাগের বড় ভাই ও ছাত্রলীগের সহসভাপতি রুহুল আমিন কিস্কু তার রুমে সবাইকে ডাকেন। তবে বাপ্পী, আর দুজন বন্ধু মিলে ফরিদকে মারধর শুরু করে। সেখানে সমঝোতা বৈঠক হওয়ার সময় অভিযুক্তরা দুই ছাত্রকে চাপাতির উল্টো পাশ দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। আহতরা চিকিৎসা নিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ফরিদ বলেন, সমঝোতার কথা বলে ছাত্রলীগ নেতার আশ্রিতরা পিটিয়েছে সুহার্তকে। তাকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে তাকেও পেটানো হয়।

এ অভিযোগ প্রসঙ্গে রাবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি কিস্কু জানান, বিভাগের কয়েকজন ছোট ভাই গোলমাল করেছিল। সেটাই তিনি মিটমাট করে দিতে সবাইকে ডেকেছিলেন। তারা আমার কক্ষে মারামারি শুরু করে। ফলে তাদের কয়েকটা চড়থাপ্পড় দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেনি বলে জানিয়েছেন মতিহার থানার ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন