শ্রেণিকক্ষ সংকটে প্রশাসনিক ভবনে কুবি শিক্ষার্থীদের তালা
jugantor
শ্রেণিকক্ষ সংকটে প্রশাসনিক ভবনে কুবি শিক্ষার্থীদের তালা

  কুবি প্রতিনিধি  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২১:৩৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে শিক্ষার্থীদের তালা

ক্লাসরুম সংকট নিরসনসহ ৫ দফা দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে অনুষদের সামনে আন্দোলন শুরু করেন তারা। পরে প্রশাসনিক ভবনের কলাপসিবল গেটে তালা ঝুলিয়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।

পাঁচ দফা দাবি হল শ্রেণিকক্ষ সংকট নিরসন, প্রত্যেক বিভাগের জন্য ল্যাবরুম, সেমিনার রুম, শিক্ষকদের জন্য পর্যাপ্ত রুম, কমনরুম এবং স্বতন্ত্র বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ।

আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির আহমেদ বলেন, ‘বিজনেস স্টাডিজ অনুষদে চারটি বিভাগ রয়েছে। আমাদের যে শ্রেণিকক্ষ রয়েছে তা পর্যাপ্ত নয়। এ ছাড়াও আমাদের কোনো ল্যাব কিংবা সেমিনার নেই। মেয়েদের জন্য একটা কমনরুম পর্যন্ত নেই। প্রশাসন আজ আমাদের সঙ্গে বসেছিল। রোববার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন তারা। আমরা এ কারণে আন্দোলন স্থগিত করেছি।’

এ সব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আমরা বসেছিলাম। ওদের দাবি শুনেছি। বৃহস্পতিবার উপাচার্য মহোদয় আসলে বিষয়টি নিয়ে আমরা বসব। আশা করি আগামী রোববারের মধ্যে সমাধান হবে।’

শ্রেণিকক্ষ সংকটে প্রশাসনিক ভবনে কুবি শিক্ষার্থীদের তালা

 কুবি প্রতিনিধি 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৯:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে শিক্ষার্থীদের তালা
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে শিক্ষার্থীদের তালা

ক্লাসরুম সংকট নিরসনসহ ৫ দফা দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে অনুষদের সামনে আন্দোলন শুরু করেন তারা। পরে প্রশাসনিক ভবনের কলাপসিবল গেটে তালা ঝুলিয়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।

পাঁচ দফা দাবি হল শ্রেণিকক্ষ সংকট নিরসন, প্রত্যেক বিভাগের জন্য ল্যাবরুম, সেমিনার রুম, শিক্ষকদের জন্য পর্যাপ্ত রুম, কমনরুম এবং স্বতন্ত্র বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ।

আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির আহমেদ বলেন, ‘বিজনেস স্টাডিজ অনুষদে চারটি বিভাগ রয়েছে। আমাদের যে শ্রেণিকক্ষ রয়েছে তা পর্যাপ্ত নয়। এ ছাড়াও আমাদের কোনো ল্যাব কিংবা সেমিনার নেই। মেয়েদের জন্য একটা কমনরুম পর্যন্ত  নেই। প্রশাসন আজ  আমাদের সঙ্গে বসেছিল। রোববার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন তারা। আমরা এ কারণে আন্দোলন স্থগিত করেছি।’

এ সব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আমরা বসেছিলাম। ওদের দাবি শুনেছি। বৃহস্পতিবার উপাচার্য মহোদয় আসলে বিষয়টি নিয়ে আমরা বসব। আশা করি আগামী রোববারের মধ্যে সমাধান হবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন