করোনা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা
jugantor
করোনা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

  ঢাবি প্রতিনিধি  

১৬ মার্চ ২০২০, ১২:১৩:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করা হয়েছে।

আগামী ১৮-২৮ মার্চ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

দেশ করোনা সংক্রমিত হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন মহলে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবি উঠেছিল। তবে শুরুতে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছিল স্কুল-কলেজ বন্ধ হওয়ার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। তবে প্রয়োজন হলে বন্ধ ঘোষণা করা হবে।

প্রসঙ্গত দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী দু’জনই পুরুষ। একজনের ডায়াবেটিস ও ব্লাডপ্রেশারের সমস্যা রয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এ দু’জনই বর্তমানে ভালো আছেন। শনিবার থেকে এ পর্যন্ত ২৭৫ জনকে বিমানবন্দর থেকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে ও গাজীপুরের পুবাইলে কোয়ারেন্টিনে রেখে পরীক্ষা করা হচ্ছে। যাদের শরীরে লক্ষণ নেই তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

সারা দেশে ২ হাজার ৪৭১ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। এরমধ্যে ঢাকা বিভাগের ১ হাজার ৪৮, চট্টগ্রাম বিভাগের ১ হাজার ১৯৭, রাজশাহীতে ১৫, খুলনায় ৪৯, বরিশালে ২৯, ময়মনসিংহে ১৯, রংপুরে ২৫ এবং সিলেটে ৯ জন। যদিও আইইডিসিআরের হিসাব মতে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ২ হাজার ৩১৪ জন।

এছাড়া শনিবার থেকে এ পর্যন্ত ৪১৭ জনকে বিমানবন্দর থেকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে এবং গাজীপুরের পুবাইলে রেখে শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ আছে কিনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে শনিবার ইতালি থেকে আসা ১৪২ জনের শরীরে কোনো লক্ষণ না থাকায় তাদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। বাকিদেরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে নিজ বাড়িতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান।

করোনা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

 ঢাবি প্রতিনিধি 
১৬ মার্চ ২০২০, ১২:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

 

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করা হয়েছে। 

আগামী ১৮-২৮ মার্চ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। 

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

দেশ করোনা সংক্রমিত হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন মহলে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবি উঠেছিল। তবে শুরুতে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছিল স্কুল-কলেজ বন্ধ হওয়ার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। তবে প্রয়োজন হলে বন্ধ ঘোষণা করা হবে।

প্রসঙ্গত দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী দু’জনই পুরুষ। একজনের ডায়াবেটিস ও ব্লাডপ্রেশারের সমস্যা রয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এ দু’জনই বর্তমানে ভালো আছেন। শনিবার থেকে এ পর্যন্ত ২৭৫ জনকে বিমানবন্দর থেকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে ও গাজীপুরের পুবাইলে কোয়ারেন্টিনে রেখে পরীক্ষা করা হচ্ছে। যাদের শরীরে লক্ষণ নেই তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

সারা দেশে ২ হাজার ৪৭১ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। এরমধ্যে ঢাকা বিভাগের ১ হাজার ৪৮, চট্টগ্রাম বিভাগের ১ হাজার ১৯৭, রাজশাহীতে ১৫, খুলনায় ৪৯, বরিশালে ২৯, ময়মনসিংহে ১৯, রংপুরে ২৫ এবং সিলেটে ৯ জন। যদিও আইইডিসিআরের হিসাব মতে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ২ হাজার ৩১৪ জন।

এছাড়া শনিবার থেকে এ পর্যন্ত ৪১৭ জনকে বিমানবন্দর থেকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে এবং গাজীপুরের পুবাইলে রেখে শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ আছে কিনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে শনিবার ইতালি থেকে আসা ১৪২ জনের শরীরে কোনো লক্ষণ না থাকায় তাদের নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। বাকিদেরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে নিজ বাড়িতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

০৪ ডিসেম্বর, ২০২১