আন্দোলনে থমকে আছে রাজপথ, বিপাকে সাধারণ মানুষ

  রীনা আকতার তুলি ১১ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

সড়ক  অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্র্থীরা
সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্র্থীরা

কোটা সংস্কারের দাবিতে গত রোববার থেকে শুরু হওয়া আন্দোলন বুধবারও অব্যাহত রয়েছে। রাজধানীর পাবলিক ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেছেন। এতে রাজপথ থমকে যায়। বিপাকে পড়েন সাধারণ মানুষ।

সকাল ৯টার পরপরই এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের হাজারো শিক্ষার্থী রাজধানীর পান্থপথ, তেজগাঁও, ফার্মগেট, মিরপুর, বাড্ডা, পান্থপথ ও ফার্মগেটসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধ করে। ফলে পুরো রাজধানীতে যানজট ছড়িয়ে পড়ে ও যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ ছাড়া খামারবাড়ির সামনের সড়কেও পুলিশ ব্যারিকেড দেয়।

রাজধানীর বসুন্ধরা গেটে সড়ক অবরোধ করে সকাল থেকে বিক্ষোভ করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ফলে বসুন্ধরা গেট থেকে রামপুরা পর্যন্ত রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, বসুন্ধরা গেট থেকে রামপুরা পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এছাড়া রাস্তায়, বাসের ছাদে বসে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে এই মোড়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে যায়।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফেরদৌস করিম জানায়, কোটা সংস্কার নয়, আমরা চাই সরকারি চাকরি কোটামুক্ত ঘোষণা করা হোক। সরকারি চাকরি হোক মেধার মাধ্যমে।

তিনি বলেন, আমাদের এক কথা এক দাবি, সোনার বাংলায় কোটার ঠাঁই নেই। আমাদের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ অন্দোলন চালিয়ে যাব।

বসুন্ধরা থেকে রামপুরা যাচ্ছিলেন বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফ আহসান। তিনি যুগান্তরকে বলেন, অধিকার আদায়ের আন্দোলন ভালো। তবে তা যে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কারণ না হয়। সকাল থেকে রাস্তায় কোনো গাড়ি চলছে না। অফিস যেতে অনেক বেগ পেতে হয়েছে।

ফার্মগেট মা রোকেয়া বেগমের সঙ্গে স্কুল থেকে হেঁটে বাসায় ফিরছিল স্কুলপড়ুয়া মুনিয়া। রোকেয়া জানায়, কোটার আন্দোলন আমাদের অতিষ্ঠ করে তুলেছে। বাচ্চাদের স্কুলে যাওয়া নিয়ে শঙ্কা হয়েছে। আমরা এর সমাধান চাই।

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে সবখানে। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যোগ দেয়ায় চতুর্থ দিনে আন্দোলন আরও তীব্র আকার ধারণ করেছে। বুধবারও ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা যোগ দেয় বিক্ষোভ সমাবেশে।

ঘটনাপ্রবাহ : কোটাবিরোধী আন্দোলন ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter