কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ
jugantor
কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ১৫:৪৬:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক সানোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অধ্যক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিদর্শন দপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে কলেজ অধ্যক্ষকে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. ফয়জুল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক সানোয়ার হোসেন যে অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুঃখজনক ঘটনা ঘটিয়েছেন, তা খতিয়ে দেখে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিশ্ববিদ্যালয়কে জানাতে হবে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের বরাতে এতে বলা হয়, সংশ্লিষ্ট কলেজের শিক্ষক সানোয়ার হোসেন তার ছাত্রের মায়ের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক ও অশালীন আচরণ করেন। একপর্যায়ে তার মা এবং বোনকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন।

এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। পাশাপাশি অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দেওয়া হয়।

কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ০৩:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক সানোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অধ্যক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। 

গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিদর্শন দপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে কলেজ অধ্যক্ষকে। 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. ফয়জুল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

চিঠিতে বলা হয়েছে, ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক সানোয়ার হোসেন যে অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুঃখজনক ঘটনা ঘটিয়েছেন, তা খতিয়ে দেখে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিশ্ববিদ্যালয়কে জানাতে হবে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের বরাতে এতে বলা হয়, সংশ্লিষ্ট কলেজের শিক্ষক সানোয়ার হোসেন তার ছাত্রের মায়ের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক ও অশালীন আচরণ করেন। একপর্যায়ে তার মা এবং বোনকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন। 

এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। পাশাপাশি অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দেওয়া হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন