বুয়েটে ভর্তির আবেদন শুরু ১৫ এপ্রিল
jugantor
বুয়েটে ভর্তির আবেদন শুরু ১৫ এপ্রিল

  ঢাবি প্রতিনিধি  

১০ এপ্রিল ২০২১, ১৪:০৯:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) প্রকৌশল, পুরকৌশল, যন্ত্রকৌশল, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল এবং স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে স্নাতক শ্রেণিতে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু হবে।

অনলাইনের মাধ্যমে এ আবেদন চলবে ২৪ এপ্রিল বেলা তিনটা পর্যন্ত। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বৈশ্বিক মহামারির কারণে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হবে।

এ প্রেক্ষিতে প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা চারটি শিফটে গ্রহণ করা হবে। প্রাকনির্বাচনী পরীক্ষায় মেধার ভিত্তিতে নির্বাচিত আকেদনাকারীদের মূল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদান করা হবে।

পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবে যারা: ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য শিক্ষার্থীর যে সব যােগ্যতা থাকতে হবে তার মধ্যে রয়েছে -
প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বাের্ড মাদ্রাসা শিক্ষা বাের্ড কারিগরি শিক্ষা বাের্ড থেকে গ্রেড পদ্ধতিতে বিজ্ঞান বিভাগে (গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও সানসহ) ৫.০০ এর স্কেলে কমপক্ষে জিপিএ ৪.০০ পেয়ে মাধ্যমিক স্কুল সা্টিফিকেট/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে অথবা বিদেশী শিক্ষা বাের্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে।

এছাড়াও প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বাের্ড,মাদ্রাসা শিক্ষা বাের্ড/কারিগরি শিক্ষা বাের্ড থেকে উচ্চ মাধ্যমিক/ আলীম/ সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন এই তিনটি বিষয়ে রেজিস্ট্রেশনসহ গ্রেড পদ্ধতিতে ৫.০০ এর স্কেলে কমপক্ষে জিপিএ ৫.০০ এবং মাধ্যমিক/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন এই তিনটি বিষয়ে ৩০০ নম্বরের মধ্যে ন্যূনতম ২৭০ নম্বর পেয়ে মাধ্যমিক/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে অথবা বিদেশি শিক্ষা বাের্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল গ্রেড নম্বর পেয়ে পাশ করতে হবে।

আবেদনকারীদের থেকে ১ম থেকে ২৪ হাজারতম পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীকে প্রাক নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে। এই বাছাইয়ের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর মাধ্যমিক পরীক্ষার গণিত, পদার্থ ও রসায়ন পরীক্ষার মোট প্রাপ্ত নম্বর, গনিতে প্রাপ্ত নম্বর এবং পদার্থবিজ্ঞানে প্রাপ্ত নম্বরকে অগ্রাধিকারের ক্রম হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

আসন সংখ্যা: পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতি গােষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের জন্য প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মােট ৩টি এবং স্থাপত্য বিভাগে ১টি সংরক্ষিত আসনসহ সর্বমােট আসন সংখ্যা ১২১৫টি।

আবেদন করার নিয়ম: আবেদন করার নিয়ম ভর্তির নির্দেশিকা (Guideline) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (www.buet.ac.bd)-এ পাওয়া যাবে।

ওয়েবসাইটে প্রদত্ত নির্দেশনা মােতাবেক আবেদন ফরম যথাযথভাবে পূরণ করে তা অনলাইনে সাবমিট করতে হবে। সাবমিট করা শেষে একটি আবেদনের সিরিয়াল নাম্বার দেয়া হবে এবং পরবর্তীতে এই নম্বরের বিপরীতে ‘সােনালী ব্যাংক অনলাইন পাের্টাল', ‘সােনালী ব্যাংক Sonali esheba মােবাইল অ্যাপ', নগদ, রকেট, NexusPay, বা বিকাশ মােবাইল অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আবেদন ও ভর্তি পরীক্ষা বাবদ প্রদেয় ফি জমা দিতে হবে।

বুয়েটে ভর্তির আবেদন শুরু ১৫ এপ্রিল

 ঢাবি প্রতিনিধি 
১০ এপ্রিল ২০২১, ০২:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) প্রকৌশল, পুরকৌশল, যন্ত্রকৌশল, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল এবং স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে স্নাতক শ্রেণিতে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু হবে।

অনলাইনের মাধ্যমে এ আবেদন চলবে ২৪ এপ্রিল বেলা তিনটা পর্যন্ত। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বৈশ্বিক মহামারির কারণে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হবে।

এ প্রেক্ষিতে প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা চারটি শিফটে গ্রহণ করা হবে। প্রাকনির্বাচনী পরীক্ষায় মেধার ভিত্তিতে নির্বাচিত আকেদনাকারীদের মূল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদান করা হবে।

পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবে যারা: ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য শিক্ষার্থীর যে সব যােগ্যতা থাকতে হবে তার মধ্যে রয়েছে -
প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বাের্ড মাদ্রাসা শিক্ষা বাের্ড কারিগরি শিক্ষা বাের্ড থেকে গ্রেড পদ্ধতিতে বিজ্ঞান বিভাগে (গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও সানসহ) ৫.০০ এর স্কেলে কমপক্ষে জিপিএ ৪.০০ পেয়ে মাধ্যমিক স্কুল সা্টিফিকেট/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে অথবা বিদেশী শিক্ষা বাের্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে।

এছাড়াও প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বাের্ড,মাদ্রাসা শিক্ষা বাের্ড/কারিগরি শিক্ষা বাের্ড থেকে উচ্চ মাধ্যমিক/ আলীম/ সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন এই তিনটি বিষয়ে রেজিস্ট্রেশনসহ গ্রেড পদ্ধতিতে ৫.০০ এর স্কেলে কমপক্ষে জিপিএ ৫.০০ এবং মাধ্যমিক/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন এই তিনটি বিষয়ে ৩০০ নম্বরের মধ্যে ন্যূনতম ২৭০ নম্বর পেয়ে মাধ্যমিক/দাখিল/সমমানের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে অথবা বিদেশি শিক্ষা বাের্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল গ্রেড নম্বর পেয়ে পাশ করতে হবে।

আবেদনকারীদের থেকে ১ম থেকে ২৪ হাজারতম পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীকে প্রাক নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে। এই বাছাইয়ের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর মাধ্যমিক পরীক্ষার গণিত, পদার্থ ও রসায়ন পরীক্ষার মোট প্রাপ্ত নম্বর, গনিতে প্রাপ্ত নম্বর এবং পদার্থবিজ্ঞানে প্রাপ্ত নম্বরকে অগ্রাধিকারের ক্রম হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

আসন সংখ্যা: পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতি গােষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের জন্য প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মােট ৩টি এবং স্থাপত্য বিভাগে ১টি সংরক্ষিত আসনসহ সর্বমােট আসন সংখ্যা ১২১৫টি।

আবেদন করার নিয়ম: আবেদন করার নিয়ম ভর্তির নির্দেশিকা (Guideline) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (www.buet.ac.bd)-এ পাওয়া যাবে।

ওয়েবসাইটে প্রদত্ত নির্দেশনা মােতাবেক আবেদন ফরম যথাযথভাবে পূরণ করে তা অনলাইনে সাবমিট করতে হবে। সাবমিট করা শেষে একটি আবেদনের সিরিয়াল নাম্বার দেয়া হবে এবং পরবর্তীতে এই নম্বরের বিপরীতে ‘সােনালী ব্যাংক অনলাইন পাের্টাল', ‘সােনালী ব্যাংক Sonali esheba মােবাইল অ্যাপ', নগদ, রকেট, NexusPay, বা বিকাশ মােবাইল অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আবেদন ও ভর্তি পরীক্ষা বাবদ প্রদেয় ফি জমা দিতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন