ডেঙ্গির প্রকোপ বাড়ছে শেকৃবির হলগুলোতে
jugantor
ডেঙ্গির প্রকোপ বাড়ছে শেকৃবির হলগুলোতে

  শেকৃবি প্রতিনিধি  

২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫২:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘদিন করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর সংক্রমণ কমে যখন শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক হতে চলেছে তখনই রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) বিভিন্ন আবাসিক হলে ডেঙ্গির প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের গণরুমে অবস্থানরত ছয়জন, নবাব সিরাজউদ্দৌলা হলের তিনজন এবং কৃষকরত্ন শেখ হাসিনা হলে ২ জন এবং শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলের ১ জন শিক্ষার্থীর ইতোমধ্যেই ডেঙ্গি শনাক্ত হয়েছে। এমনকি ফাইনাল পরীক্ষা দেওয়ার সময় ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়ে গত শনিবার বিউটি আক্তার নামের এক শিক্ষার্থী হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত পার্শ্ববর্তী সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এছাড়াও ডেঙ্গি উপসর্গ নিয়ে ছাত্র হল ও ছাত্রী হলগুলোতে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অবস্থান করছেন বেশ কিছু শিক্ষার্থী। এদিকে দীর্ঘ লকডাউনের পর বিভিন্ন অনুষদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ডেঙ্গি সংক্রমণ বাড়ার উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন হলে থাকা সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ডেঙ্গি আক্রান্ত তাওসীফ শাহরিয়ার আকাশ বলেন, প্রতি বছর এ সময়টাতে ডেঙ্গির প্রকোপ বাড়ে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত পূর্বপরিকল্পিতভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। আর এখন যেহেতু আমাদের সবার পরীক্ষা চলমান তাই সময়টি আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ অবস্থায় কেউ আক্রান্ত হয়ে গেলে তার জন্য পরীক্ষা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শক ও পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. ফরহাদ হোসাইন সংক্রমণের বিষয়ে বলেন, আমরা বিষয়টি ইতোমধ্যেই অবগত হয়েছি। খুব শীঘ্রই মশা নিরোধক স্প্রে করা হবে। আর আক্রান্ত কোনো শিক্ষার্থীর পরীক্ষা চলমান থাকলে আবেদনের প্রেক্ষিতে তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডেঙ্গির প্রকোপ বাড়ছে শেকৃবির হলগুলোতে

 শেকৃবি প্রতিনিধি 
২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘদিন করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর সংক্রমণ কমে যখন শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক হতে চলেছে তখনই রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) বিভিন্ন আবাসিক হলে ডেঙ্গির প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। 

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের গণরুমে অবস্থানরত ছয়জন, নবাব সিরাজউদ্দৌলা হলের তিনজন এবং কৃষকরত্ন শেখ হাসিনা হলে ২ জন এবং শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলের ১ জন শিক্ষার্থীর ইতোমধ্যেই ডেঙ্গি শনাক্ত হয়েছে। এমনকি ফাইনাল পরীক্ষা দেওয়ার সময় ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়ে গত শনিবার বিউটি আক্তার নামের এক শিক্ষার্থী হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত পার্শ্ববর্তী সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এছাড়াও ডেঙ্গি উপসর্গ নিয়ে ছাত্র হল ও ছাত্রী হলগুলোতে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অবস্থান করছেন বেশ কিছু শিক্ষার্থী। এদিকে দীর্ঘ লকডাউনের পর বিভিন্ন অনুষদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ডেঙ্গি সংক্রমণ বাড়ার উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন হলে থাকা সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ডেঙ্গি আক্রান্ত তাওসীফ শাহরিয়ার আকাশ বলেন, প্রতি বছর এ সময়টাতে ডেঙ্গির প্রকোপ বাড়ে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত পূর্বপরিকল্পিতভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। আর এখন যেহেতু আমাদের সবার পরীক্ষা চলমান তাই সময়টি আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ অবস্থায় কেউ আক্রান্ত হয়ে গেলে তার জন্য পরীক্ষা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শক ও পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. ফরহাদ হোসাইন সংক্রমণের বিষয়ে বলেন, আমরা বিষয়টি ইতোমধ্যেই অবগত হয়েছি। খুব শীঘ্রই মশা নিরোধক স্প্রে করা হবে। আর আক্রান্ত কোনো শিক্ষার্থীর পরীক্ষা চলমান থাকলে আবেদনের প্রেক্ষিতে তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন