ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় হলেন যারা
jugantor
ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় হলেন যারা

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৭ জুন ২০২২, ১৫:৩৮:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবদুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে বেলা ১টায় এই ফল আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেন।

এবার প্রথম হয়েছেন ফরিদপুরের শিক্ষার্থী নাহনুল কবির নুয়েল। সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের ছাত্র তিনি।

দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছেন যথাক্রমে বরিশালের তাবিয়া তাসনিম ও মাদারীপুরের শিক্ষার্থী সাবরিন আর্কার কেয়া।

নাহনুল কবির নুয়েলের মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬.৫০ (মূল পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে ৭৬ দশমিক ৫০)।

কিন্তু দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানের তাবিয়া ও কেয়ার প্রাপ্ত নম্বর সমান। দুজনেই ৯৬. ২৫ (মূল পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে ৭৬ দশমিক ২৫) পেয়েছেন।

তাবিয়া বরিশাল গভর্নমেন্ট উইমেন্স কলেজের ছাত্রী। আর সাবরিন মাদারীপুরের সরকারি নাজিমুদ্দীন কলেজ থেকে এইচএসসি দিয়েছেন৷

একই নম্বর পাওয়ার পরও তাবিয়াকে দ্বিতীয় ধরা হলো প্রশ্নে তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিমালা অনুসারে এটি ঠিক করা হয়েছে।

গত ৪ জুন ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এক হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৭৩ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার আবেদন করেন। পরীক্ষায় অংশ নেন ৪৬ হাজার ৯৭২ জন। এক হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে পরীক্ষায় অংশ নেন ৫৬ হাজার ৯৭২ জন।

এবারও নৈর্ব্যক্তিকের পাশাপাশি লিখিত অংশও ছিল।

পরীক্ষায় পাস করেছেন ৯.৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। এর মানে দাঁড়াচ্ছে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ৯০.১৩ শতাংশই অকৃতকার্য হয়েছে।
মোট কৃতকার্য হয়েছেন ৫ হাজার ৬২২ জন।

ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় হলেন যারা

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৭ জুন ২০২২, ০৩:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ হয়েছে। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবদুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে বেলা ১টায় এই ফল আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেন।

এবার প্রথম হয়েছেন ফরিদপুরের শিক্ষার্থী নাহনুল কবির নুয়েল। সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের ছাত্র তিনি।

দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছেন যথাক্রমে বরিশালের তাবিয়া তাসনিম ও মাদারীপুরের শিক্ষার্থী সাবরিন আর্কার কেয়া।

নাহনুল কবির নুয়েলের মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬.৫০ (মূল পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে ৭৬ দশমিক ৫০)।

কিন্তু দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানের তাবিয়া ও কেয়ার প্রাপ্ত নম্বর সমান। দুজনেই ৯৬. ২৫ (মূল পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে ৭৬ দশমিক ২৫) পেয়েছেন। 

তাবিয়া বরিশাল গভর্নমেন্ট উইমেন্স কলেজের ছাত্রী। আর সাবরিন মাদারীপুরের সরকারি নাজিমুদ্দীন কলেজ থেকে এইচএসসি দিয়েছেন৷

একই নম্বর পাওয়ার পরও তাবিয়াকে দ্বিতীয় ধরা হলো প্রশ্নে তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিমালা অনুসারে এটি ঠিক করা হয়েছে।

গত ৪ জুন ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।  এতে এক হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৭৩ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার আবেদন করেন। পরীক্ষায় অংশ নেন ৪৬ হাজার ৯৭২ জন। এক হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে পরীক্ষায় অংশ নেন ৫৬ হাজার ৯৭২ জন।

এবারও নৈর্ব্যক্তিকের পাশাপাশি লিখিত অংশও ছিল।

পরীক্ষায় পাস করেছেন ৯.৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। এর মানে দাঁড়াচ্ছে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ৯০.১৩ শতাংশই অকৃতকার্য হয়েছে।
মোট কৃতকার্য হয়েছেন ৫ হাজার ৬২২ জন।   
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন