বারির উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল বৃত্তি পেল ৬৩ শিক্ষার্থী
jugantor
বারির উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল বৃত্তি পেল ৬৩ শিক্ষার্থী

  গাজীপুর প্রতিনিধি  

২৭ জুন ২০২২, ২২:৩২:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বৃত্তি

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে সোমবার ইনস্টিটিউটের উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ বছর বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উচ্চ বিদ্যালয় ও ছোট দেওরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণির মোট ৬৩ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বারির মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র বিতরণ করেন।

বারির পরিচালক (সেবা ও সরবরাহ) ও উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের সভাপতি ড. মো. কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ) ড. ফেরদৌসী ইসলাম, পরিচালক (কন্দাল ফসল গবেষণা কেন্দ্র) ড. সোহেলা আক্তার, পরিচালক (উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্র) ড. নির্মল চন্দ্র শীল, বারির পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন উইংয়ের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের সহ-সভাপতি ড. দীদার সুলতানা।

এছাড়া অনুষ্ঠানে ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বিভাগের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা, কর্মচারী, বিএআরআই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া প্রদর্শনের মাধ্যমে উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের মৃত্তিকা ও পানি ব্যবস্থাপনা শাখার ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও তহবিলের সদস্য সচিব ড. খোকন কুমার সরকার।

উল্লেখ্য, বারির এফএমপিই বিভাগের জুনিয়র ফিটার মো. আবুল হাসেমের মেয়ে ও ছোট দেওরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী মোসাম্মত উম্মেয়ারা ১৯৮৮ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়। কোমলমতি এই শিক্ষার্থীর স্মৃতি রক্ষা এবং গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পথ সুগম করতে উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল গঠন করা হয়।

বারির উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল বৃত্তি পেল ৬৩ শিক্ষার্থী

 গাজীপুর প্রতিনিধি 
২৭ জুন ২০২২, ১০:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বৃত্তি
ছবি-যুগান্তর

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়েছে। 

এ উপলক্ষ্যে সোমবার ইনস্টিটিউটের উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

এ বছর বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উচ্চ বিদ্যালয় ও ছোট দেওরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণির মোট ৬৩ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র দেওয়া হয়। 

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বারির মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র বিতরণ করেন। 

বারির পরিচালক (সেবা ও সরবরাহ) ও উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের সভাপতি ড. মো. কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ) ড. ফেরদৌসী ইসলাম, পরিচালক (কন্দাল ফসল গবেষণা কেন্দ্র) ড. সোহেলা আক্তার, পরিচালক (উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্র) ড. নির্মল চন্দ্র শীল, বারির পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন উইংয়ের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের সহ-সভাপতি ড. দীদার সুলতানা। 

এছাড়া অনুষ্ঠানে ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বিভাগের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা, কর্মচারী, বিএআরআই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া প্রদর্শনের মাধ্যমে উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের মৃত্তিকা ও পানি ব্যবস্থাপনা শাখার ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও তহবিলের সদস্য সচিব ড. খোকন কুমার সরকার।

উল্লেখ্য, বারির এফএমপিই বিভাগের জুনিয়র ফিটার মো. আবুল হাসেমের মেয়ে ও ছোট দেওরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী মোসাম্মত উম্মেয়ারা ১৯৮৮ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়। কোমলমতি এই শিক্ষার্থীর স্মৃতি রক্ষা এবং গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পথ সুগম করতে উম্মেয়ারা স্মৃতি তহবিল গঠন করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন