ইবির ভর্তি পরীক্ষায় যুক্ত হচ্ছে লিখিত পদ্ধতি

  ইবি প্রতিনিধি ১৪ আগস্ট ২০১৮, ২১:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৩-৭ নভেম্বর। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় এমসিকিউ পদ্ধতির সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে লিখিত পদ্ধতি।

ভর্তি পরীক্ষায় ভর্তিচ্ছুকে ৬০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নের সঙ্গে ২০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এসএম আবদুল লতিফ।

এছাড়া কমিটির সভায় ভর্তি পরীক্ষার তারিখ এবং প্রশ্ন পদ্ধতি এবং ইউনিটের অধীনে বিভাগ অন্তর্ভুক্তি নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটি সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ভর্তি পরীক্ষার অনলাইনে আবেদন শুরু হবে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর থেকে চলবে ১০ অক্টবরের পর্যন্ত।

ভর্তি পরীক্ষায় ১২০ নম্বরের মধ্যে ৬০ নম্বর এমসিকিউ, ২০ নম্বর লিখিত ও ৪০ নম্বর একাডেমিক (এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান) ফলাফলের ভিত্তিতে নির্ধারণ করা হবে। এ বছর ৩৩টি বিভাগের অধীনে ২ হাজার ২৭৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবে।

সভায় ভর্তি পরীক্ষায় ৮টি ইউনিটের পরিবর্তে ৪টি ইউনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৩টি বিভাগ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এতে ‘এ’ ইউনিটের অধীনে ধর্মতত্ত্ব অনুষদের ৩টি বিভাগ এবং মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদভুক্ত আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এবং আইন ও শরিয়াহ অনুষদভুক্ত আল-ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

‘বি’ ইউনিটের অধীনে মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ১০টি এবং আইন ও শরিয়াহ অনুষদের ২টিসহ (আইন বিভাগ এবং আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগ) মোট ১২টি বিভাগ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ‘সি’ ইউনিটের অধীনে ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ৬টি বিভাগ এবং ‘ডি’ ইউনিটে অধীনে ফলিতবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ১১টি বিভাগ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এদিকে আইন ও শরিয়াহ অনুষদভুক্ত তিন বিভাগের মধ্যে আইন বিভাগ ও আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগকে মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটের আওতাভুক্ত করা হলেও আল-ফিকহ অ্যান্ড লিগাল স্টাডিজ বিভাগকে ধর্মতত্ত্ব ‘এ’ ইউনিটের আওতাভুক্ত করা হয়েছে।

একইসঙ্গে ‘বি’ ইউনিটের মানবিক অনুষদভুক্ত আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগকে ‘এ’ ইউনিটের আওতাভুক্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়টি নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি যুগান্তরকে বলেন, ভর্তি পরীক্ষা কমিটি একপ্রকার জোর করেই আরবী সাহিত্য বিভাগকে ধর্মতত্ত্ব ইউনিটের অন্তর্ভুক্ত করেছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়সহ আরও তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি সাহিত্য বিভাগ রয়েছে। আরবি সাহিত্য বিভাগকে কখনো ধর্মতত্ত্ব ইউনিটের অন্তর্ভুক্ত করা হয় না। আরবী সাহিত্য বিভাগ এবং ধর্মতত্ত্ব অনুষদের সাবজেক্টের মধ্যে ভিন্নতা রয়েছে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.