আইইএলটিএস লিসেনিং মডিউলে স্কিল বাড়ানোর কৌশল

প্রকাশ : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫০ | অনলাইন সংস্করণ

  মাহমুদ উজ জামান

রবিউল সাহেবের অনেক দিনের স্বপ্ন কানাডায় সপরিবারে স্থায়ী হবেন।  এ জন্য তার চেষ্টার কোনো সীমা নেই। কিন্তু ফরিদ সাহেবের সামনে অন্যতম প্রধান প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়িয়েছে IELTS। কানাডার ইমিগ্রেশনের জন্য নির্ধারিত IELTS স্কোর ছাড়া কোনোভাবেই এ পথে অগ্রসর হওয়া সম্ভব নয়। 

রবিউল সাহেবের মতো এ রকম অনেক বাংলাদেশি আছেন যারা সঠিক গাইডলাইন এবং প্রস্তুতির অভাবে IELTS পরীক্ষায় ভালো স্কোর করতে পারছেন না।

অথচ IELTS কোনো রকেট সায়েন্স নয়! বরং এটি একটি ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্ট মাত্র। কিছু টেকনিক প্রয়োগের মাধ্যমে এই পরীক্ষায় ভালো স্কোর তোলা সম্ভব।

আজকের লেখা  IELTS লিসেনিং মডিউল নিয়ে।   

একটিভ লিসেনিং:

প্রতিদিন নিয়মিত অনুশীলন ছাড়া লিসেনিং-এ ভালো করার কোনো উপায়ই নেই। এ কথা অনস্বীকার্য যে, কারো শ্রবণেন্দ্রিয় ইংরেজি শব্দগুলো বিভিন্ন একসেন্টে শোনার জন্য যতক্ষণ পর্যন্ত প্রস্তুত না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত লিসেনিং-এ স্কোর ভালো আসবে না।

আর এ জন্য প্যাসিভ লিসেনিংয়ের পরিবর্তে এক্টিভ লিসেনিং খুবই জরুরি। প্যাসিভ লিসেনিং বলতে আমরা বুঝি, নিজের মতো করে এক মনে শুনে যাওয়া। এই পদ্ধতিতে একজন শ্রোতা কোনো বক্তব্যের কিছু অংশ শুনে এবং কিছু অংশে মনোযোগ ধরে রাখতে পারে না।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, কেউ যদি ইংরেজি মুভি দেখছেন কিন্তু তার অর্থ বোঝার চেষ্টা করছেন না। এমনকি মুভির ঘটনাগুলোকে সমন্বয় করে বুঝতেও ব্যর্থ হচ্ছেন, তাহলে সেটি হবে প্যাসিভ লিসেনিং।

টেপ স্ক্রিপ্ট তৈরি:

এক্টিভ লিসেনিংয়ের জন্য আপনি মন দিয়ে শুনুন এবং একই সঙ্গে টেপ স্ক্রিপ্ট তৈরি করুন। অর্থাৎ যা শুনবেন তা সঙ্গে সঙ্গে লিখে ফেলবেন।

www.ted.com সাইট থেকে আপনি চমৎকার সব ভিডিও শুনতে শুনতে লিখে ফেলতে পারবেন। পাঁচ মিনিটের একটি ভিডিওর টেপ স্ক্রিপ্ট তৈরি করতে হয়তো ৪০-৫০ মিনিট লাগবে শুরুতে কিন্তু এতে প্রতিটি শব্দের উচ্চারণ প্যাটার্ন শিখতে পারবেন।

লিসেনিং মডিউলে ভালো করতে হলে সঠিক শব্দটি আপনাকে ধরতেই হবে। আর সে কারণেই সঠিক উচ্চারণ জানাটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। 

বিবিসি:

নিয়মিত বিবিসি শুনলে লিসেনিং-এর উন্নতি অবধারিত। আপনার ফোনে বিবিসি ওয়ার্ল্ড নিউজের অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন। এরপর কাজ কিংবা অফিসের ফাঁকে সারাদিন বিবিসি শুনতে থাকুন।

সঙ্গে রাখুন একটি ছোট নোটবুক। যতগুলো নতুন শব্দ আপনি শুনবেন, সাধ্যমতো চেষ্টা করুন সেগুলো টুকে নিতে। এরপর দিন শেষে সেই শব্দগুলোর সিনোনিম, এন্টোনিম এবং বাক্যে শব্দগুলোর প্রয়োগ কোনো ডিকশনারি থেকে জেনে নিন।

'ওয়ার্ড ওয়েব' এ রকম একটি চমৎকার ডিকশনারি যেখান থেকে আপনি অফলাইনেও শব্দ নিয়ে খেলা করতে পারবেন। 'ওয়ার্ড ওয়েব' অ্যাপটি মোবাইলেও ডাউনলোড করে নিতে পারেন।