জবিতে সশরীরে পরীক্ষা শুরু
jugantor
জবিতে সশরীরে পরীক্ষা শুরু

  জবি প্রতিনিধি  

০৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৫:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সশরীরে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পূর্ব ঘোষিত সিন্ডিকেট সভার তারিখ অনুযায়ী ৭ অক্টোবর থেকে বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

সকাল সাড়ে আটটার পর থেকে শিক্ষার্থীদের বহনকারী বাসগুলো ক্যাম্পাসে এসে পৌঁছে। এরপর দুপুর ১২টা থেকে নির্ধারিত সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ পরীক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ ছাড়াও তিনি বিভিন্ন ইনস্টিটিউট ও বিভাগের পরীক্ষার হল পরিদর্শন করেন এবং পরীক্ষা চলাকালীন করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরিস্থিতি বিবেচনায় সব প্রকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন।

পরিদর্শনকালে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার গোস্বামী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নূরে আলম আবদুল্লাহ, প্রক্টর এবং সহকারী প্রক্টরসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় পুরো ক্যাম্পাস মুখরিত হয়ে উঠে। দীর্ঘ ১৯ মাস পর সহপাঠীদের পেয়ে ক্যাম্পাসের শান্ত চত্বরে, ক্যান্টিন, কাঁঠাল তলা, বিজ্ঞান ভবন, বিবিএ ভবনের নিচে এবং কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারসহ প্রতিটি স্থানে শিক্ষার্থীদের খোশগল্পে মেতে উঠতে দেখা গেছে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশ আনন্দ উচ্ছ্বাস দেখা গেছে।

জবিতে সশরীরে পরীক্ষা শুরু

 জবি প্রতিনিধি 
০৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সশরীরে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পূর্ব ঘোষিত সিন্ডিকেট সভার তারিখ অনুযায়ী ৭ অক্টোবর থেকে বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। 

সকাল সাড়ে আটটার পর থেকে শিক্ষার্থীদের বহনকারী বাসগুলো ক্যাম্পাসে এসে পৌঁছে। এরপর দুপুর ১২টা থেকে নির্ধারিত সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। 

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ পরীক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ ছাড়াও তিনি বিভিন্ন ইনস্টিটিউট ও বিভাগের পরীক্ষার হল পরিদর্শন করেন এবং পরীক্ষা চলাকালীন করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরিস্থিতি বিবেচনায় সব প্রকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন।

পরিদর্শনকালে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার গোস্বামী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নূরে আলম আবদুল্লাহ, প্রক্টর এবং সহকারী প্রক্টরসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় পুরো ক্যাম্পাস মুখরিত হয়ে উঠে। দীর্ঘ ১৯ মাস পর সহপাঠীদের পেয়ে ক্যাম্পাসের শান্ত চত্বরে, ক্যান্টিন, কাঁঠাল তলা, বিজ্ঞান ভবন, বিবিএ ভবনের নিচে এবং কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারসহ প্রতিটি স্থানে শিক্ষার্থীদের খোশগল্পে মেতে উঠতে দেখা গেছে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশ আনন্দ উচ্ছ্বাস দেখা গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর