চকবাজার ট্র্যাজেডি: যুবকদের পথপ্রদর্শক ছিলেন হাফেজ কাওসার

প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:০২ | অনলাইন সংস্করণ

  হোমনা প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাফেজ কাওসার আহমেদ

যমজ শিশুসন্তান রেখে না ফেরার দেশে চলে গেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কাওসার আহমেদ। রাজধানীর চকবাজারের আগুন এক নিমেষে কেড়ে নিল মেধাবী, পরিশ্রমী ও আত্মপ্রত্যয়ী এ যুবকের প্রাণ।

কাওসার আহমেদের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। তার মৃত্যুর সংবাদ পাওয়ার পর এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। তার পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে বাতাস। যমজ শিশুসন্তান খুঁজে ফিরছে বাবার মুখ।

একজন মেধাবী, পরিশ্রমী ও আত্মপ্রত্যয়ী যুবকের অকালমৃত্যুকে সহজে মেনে নিতে পারছে না এলাকার মানুষ। কাওসার আহমেদ ছিলেন এলাকার যুবকদের পথপ্রদর্শক।

নিহত হাফেজ মো. কাওসার আহমেদ হোমনা উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের ডা. খলিলুর রহমানের ছেলে। তিনি ৩ ভাইয়ের মধ্যে দ্বিতীয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, হাফেজ মো. কাওসার আহমেদ ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় ‘ডি’ ইউনিটে ১৭তম মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ হয়ে ভর্তি হন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তিনি কোরআনে হাফেজ, খুবই মেধাবী ও খুব পরিশ্রমী ছিলেন।

নিজের খরচ নিজে বহন করার লক্ষ্যে লেখাপড়ার পাশাপাশি চকবাজারে মদিনা ফার্মেসি ও ডেন্টাল কেয়ার নামে একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতেন।

কাওসার বিবাহিত ছিল তার আবদুল্লাহ এবং নুসাইবা নামে যমজ সন্তান আছে। তিনি সপরিবারে পুরান ঢাকায় থাকতেন।

নিহত কাওসারের ভাই ডা. ইলিয়াস যুগান্তরকে জানান, বৃহস্পতিবার সাড়ে ৩টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হাফেজ কাওসারের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় জানাজা তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার হোমনা থানার শ্রীপুর গ্রামে অনুষ্ঠিত হবে। পরে স্থানীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।