যেভাবে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত

প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ছবি-যুগান্তর

পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য এসেছে। কেউ বলছেন, গাড়ির সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ফলে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। কেউ বলছেন, ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণ থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। 

তবে শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাসায়নিক নয়, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। 

শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ মফিজুল হককে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রাথমিক প্রতিবেদনে এই তথ্য এসেছে। তবে ফায়ার সার্ভিস আগুনের সূত্রপাতের বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলেনি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আশিক উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, ঘটনার সময় তিনি পূর্বদিকের গলির মুখ থেকে একটু দূরে ছিলেন। হঠাৎ করেই বিকট শব্দ হয়। তাকিয়ে দেখি, একটি পিকআপ ভ্যানের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়েছে। ওই পিকআপ ভ্যান শূন্যে উড়ছে। তারপর আগুনের ফুলকি দেখতে পাই। একের পর এক শব্দে কেমিক্যালের গোডাউন বিস্ফোরণ হচ্ছিল। এক মিনিটের মধ্যেই চারদিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। আমরা দৌড়ে সেখান থেকে সরে যাই। যারা যানজটে আটকা পড়েছিলেন তারা কেউই বের হতে পারেননি।

তবে স্থানীয়দের কেউ কেঊ ভিন্ন বক্তব্য দিয়েছেন। তারা বলেছেন, মোড়ে একটি বিদ্যুতের খুঁটিতে ট্রান্সফরমারের বিস্ফোরণ ঘটে পিকআপ ভ্যানে পড়ে। এতে সেখান থেকে সিলিন্ডারে বিস্ফোরণ ঘটে। এর ফলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তি প্রত্যক্ষদর্শী দাবি করে যুগান্তরকে বলেন, ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণের বিকট শব্দ হয়। পরে সেখান থেকে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার সময় আমি ঘটনাস্থল থেকে ১০০ গজ দূরে ছিলাম।

এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ের কমিটি বলেছে, এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি একটি গাড়ি রাখা ছিল। গাড়িতে রাখা একটি সিলিন্ডার হঠাৎ বিস্ফোরিত হয়। এর ফলে আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন বৈদ্যুতিক লাইনের ট্রান্সফরমারে ধরে যায়। এতে  ট্রান্সফরমারে বিস্ফোরণ ঘটে।

ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আলী আহাম্মদ খান সাংবাদিকদের বলেন, সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, ট্রান্সমিটার বিস্ফোরণ, নাকি বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে তা তদন্তের পর বলা যাবে।