বনানীর ঘটনায় নিহত মামুনের বাড়ি দিনাজপুরে মাতম

  দিনাজপুর প্রতিনিধি ২৮ মার্চ ২০১৯, ২২:১২ | অনলাইন সংস্করণ

বনানীর ঘটনায় নিহত আবদুল্লাহ আল মামুন
বনানীর ঘটনায় নিহত আবদুল্লাহ আল মামুন

বনানীর এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় জীবন বাঁচাতে গিয়ে জানালা দিয়ে বের হওয়ার সময় পড়ে গিয়ে নিহত হওয়া আবদুল্লাহ আল মামুনের (৪৫) বাড়ি দিনাজপুর শহরের বালুয়াডাঙ্গায়। তরে বাড়িতে এখন চলছে মাতম।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বালুয়াডাঙ্গার তার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বিকালেই খবর পেয়েছেন মামুনের পরিবারের সদস্যরা। লাশ না পৌঁছালেও তার বাড়িতে আত্মীয়স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা ভিড় করছেন।

মামুন দিনাজপুর শহরের বালুয়াডাঙ্গা এলাকার মৃত. আবুল কাশেমের ছেলে। মামুনের বাড়ি দিনাজপুরে হলেও তিনি স্ত্রী ও ২ কন্যা (একজনের বয়স ১০ (তাহিয়া) ও একজনের বয়স ৩ (তানহা) ঢাকার কল্যাণপুরে স্থায়ীভাবে বসবাস করে।

যে ভবনটিতে আগুন লেগেছে সেই ভবনের ১২ তলায় হেরিটেজ এয়ার লাইন্স নামে একটি ট্রাভেলস এজেন্সিতে প্রধান হিসাবরক্ষক পদে কর্মরত ছিলেন মামুন।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামুনের বড় ভাই বিরল ডিগ্রি কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক মোশাররফ হোসেন।

তিনি জানান, ৩ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে মামুন দ্বিতীয়। মামুন প্রায় ১৫ বছর ধরে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে ঢাকায় নিজ বাড়িতে বসবাস করেন। বাড়িতে রয়েছেন বিধবা মা মেহেরুন নেছা। তার বাবা আবুল কাশেম প্রাক্তন বন কর্মকর্তা। আবদুল্লাহ মামুন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী এম আবদুল মজিদের শ্যালক।

মোশাররফ হোসেন জানান, জীবন বাঁচাতে কয়েকজন মিলে মামুন তার ধরে নিচে নামছিলেন। এ সময় হাত থেকে তার ছুটে গিয়ে মামুন নিয়ে পড়ে গিয়ে মারা যায়। তার লাশ ময়নাতদন্ত করা হবে বলে শুনেছি। এরপরে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। তবে কখন হস্তান্তর করা হবে, এ বিষয়ে এখনও নির্দিষ্ট না বলে জানান তিনি।

ঘটনাপ্রবাহ : বনানীতে এফআর টাওয়ারে আগুন

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×