বসুন্ধরায় আল হারামাইন পার‌ফিউমসের শোরুম উ‌দ্বোধন

‌দে‌শে প্রথম ব্যবসা শুরু যমুনা ফিউচার পা‌র্কে

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৭ মে ২০১৯, ০০:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

বসুন্ধরায় আল হারামাইন পার‌ফিউমসের শোরুম উ‌দ্বোধন

রাজধানীর বসুন্ধরা সি‌টি শ‌পিং কমপ্লেক্সে বৃহস্পতিবার আল হারামাইন পার‌ফিউমসের চতুর্থ শোরুম উদ্বোধন করা হয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইভিত্তিক বিশ্বের সবচেয়ে বড় সুগন্ধি উৎপাদন এবং বিপণনকারী কোম্পানি আল হারামইন পার‌ফিউম‌স গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক ‌মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান না‌সির বৃহস্প‌তিবার সন্ধ্যায় বসুন্ধরা শ‌পিং কমপ্লেক্সের লে‌ভেন ওয়া‌নে ওই শো রু‌মের শুভ উ‌দ্বোধন ক‌রেন।

এ সময় আরও উপ‌স্থিত ছি‌লেন, প্রতিষ্ঠান‌টির নিবার্হী প‌রিচালক সৈয়দ সা‌ব্বির আহ‌মেদসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

মাহতাবুর রহমান বলেন, বাংলা‌দে‌শে সর্ব প্রথম এ ব্যবসা শুরু ক‌রেন এ‌শিয়ার সর্ববৃহৎ শ‌পিংমল যমুনা ফিউচার পা‌র্কে।

বর্তমা‌নে যমুনা ফিউচার পা‌র্কে প্রতিষ্ঠানটির তিন‌টি শোরুম র‌য়ে‌ছে। ওখান থে‌কে উৎসা‌হিত হ‌য়েই শোরু‌মের সংখ্যা বাড়া‌চ্ছেন তি‌নি।

তি‌নি আরও ব‌লেন, ধীরে ধীরে দে‌শের সব বিভাগীয় শহর এবং জেলাগু‌লো‌তে শোরুম কর‌বেন। সাধারণ মানু‌ষের ক্রয় ক্ষমতার ম‌ধ্যে তাদের পণ্য বি‌ক্রি করা হ‌চ্ছে। বাংলা‌দে‌শের অর্থ‌নৈ‌তিক উন্নয়‌নে গুরুতপূর্ণ অংশীদার হি‌সে‌বে তি‌নি দে‌শের মা‌টি‌তে ব্যবসা শুরু ক‌রে‌ছেন। শুধু পার‌ফিউমস নয়, এ প্রতিষ্ঠানের আতর ও সুগন্ধীযুক্ত নানা র‌ক‌মের কসম্যা‌টিকও র‌য়ে‌ছে ব‌লেনও জানান মাহতাবুর রহমান।

তি‌নি ব‌লেন, তার বাবা মাওলানা কাজী আবদুল হক ১৯৫৬ সা‌লে প্রথম সৌদি আরবে যান হজ করতে। তখন তিনি সঙ্গে করে বেশ কিছু আগর কাঠ নিয়ে যান।

সৌদি আরবের বাংলাদেশিদের কাছে আগরের জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকায় পরবর্তী‌তে আবদুল হক ১৯৭০ সালে তিনি পবিত্র মক্কা নগরীতে সুগন্ধির ব্যবসা শুরু করেন। এরপর ১৯৭৫ সালে প্রথম বাবার সংঙ্গে সৌদি আরবে যান মাহতাবুর রহমান। তখন থেকেই বাবার ব্যবসা পরিচালনা শুরু করেন তিনি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×