আমরণ অনশনে নন-এমপিও শিক্ষকরা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৩৬:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

আমরণ অনশনে বসেছেন স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আন্দোলনকারী শিক্ষকরা।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ অনশন কর্মসূচি শুরু করেছেন তারা।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির আশ্বাসে অসন্তোষ প্রকাশ করে এ অনশনে বসেছেন তারা। দাবি আদায় না হওয়ায় শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসকে মানছেন না আন্দোলনকারী নন-এমপিও শিক্ষকরা।

এ বিষয়ে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মাহামুন্নবী ডলার বলেন, সারাদেশে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের একযোগে এমপিওভুক্ত করতে হবে, এমন দাবি নিয়েই আমরা আন্দোলন করে যাচ্ছি। সে দাবি পূরণে নিশ্চয়তা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা আমাদের কর্মসূচি চালিয়েই যাব।

এর আগে রোববার (২০ অক্টোবর) রাতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন নন-এমপিও শিক্ষকরা।

সেই বৈঠকে সুনির্দিষ্ট মানদণ্ডের ভিত্তিতেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিও দেয়া হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, বিদ্যমান এমপিও নীতিমালা সংশোধন করা হবে। পরিবর্তিত নীতিমালা অনুযায়ী এখন থেকে প্রতিবছর এমপিও দেয়া হবে। এমপিওপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের মান নিয়মিত মনিটর করা হবে এবং যারা নীতিমালা অনুযায়ী ফল করবে না তাদের এমপিও বাতিল করা হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান নীতিমালা অনুযায়ী এ বছরের এমপিও চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে নতুন কোনো প্রতিষ্ঠানের অন্তর্ভুক্তির সুযোগ নেই। এর ব্যত্যয় হলে আদালতে মামলা হবে। ফলে যোগ্য বিবেচিত হওয়া সব এমপিও বন্ধ হয়ে যাবে।

বৈঠকে এসব কথা বলে শিক্ষামন্ত্রী আন্দোলনকারী নন-এমপিও শিক্ষকদের আশ্বাস দেন ও আন্দোলন ছেড়ে বাড়ি ফিরে যেতে আহ্বান জানান।

এ বিষয়ে গোলাম মাহামুন্নবী ডলার বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর এ আশ্বাসে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমাদের দাবি আদায় না হওয়ায় এ আশ্বাসে আমরা ফিরে যাচ্ছি না।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত