‘ফিনটেক: ইসলামিক ফাইন্যান্স ট্যালেন্ট’

  অনলাইন ডেস্ক ১২ আগস্ট ২০২০, ১৮:৩৫:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

ফিনপ্রো কনসালটেন্টস লিমিটেডের আয়োজনে সম্প্রতি বাংলাদেশে ইসলামিক ব্যাংকিং-এ দক্ষ জনবল গঠনের লক্ষ্যে ‘ফিনটেক: ইসলামিক ফাইন্যান্স ট্যালেন্ট রোল অব ইউনির্ভার্সিটিজ’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে ইসলামিক ফাইনান্সে বর্তমান চাকরির বাজার এবং ক্যারিয়ার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করা হয়। এতে দেশ-বিদেশ থেকে ফিনটেক, ইসলামি ব্যাংকিং বিশেষজ্ঞ এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষকরা অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোহাম্মাদ মাঈন উদ্দিন, সিলেট বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মাদ আশরাফুল ফেরদৌস চৌধুরী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক মাহফুজা খাতুন এবং মালয়েশিয়ার আইএসআরএ-এর গবেষক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ। আলোচনা পরিচালনা করেন বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের অনুষদ সদস্য ড. এম মহাব্বত হোসেইন।

অনুষ্ঠানে আলোচকরা ইসলামি ব্যাংকিংয়ে ক্যারিয়ারের ক্ষেত্রে দারুণ সুযোগ রয়েছে উল্লেখ করে ইসলামিক ফাইনান্স সেবার ক্ষেত্রে ডেটা সাইন্স, অ্যানালাইটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসহ আধুনিক প্রযুক্তির ব্যাবহারের দিকে আলোকপাত করেন।

অনুষ্ঠানে ফিনপ্রো কনসালটেন্টসের চেয়ারম্যান মো. লতিফুল ইসলাম বলেন, দেশে যেভাবে ইসলামিক ফাইন্যান্সের ব্যাপ্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে সেই হারে এই খাতে জনবল সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে না, যা ইসলামিক ফাইন্যান্সের অগ্রগতির জন্য অন্তরায় হতে পারে।

ড. আশরাফুল ফেরদৌস বলেন, দেশে প্রায় ২৫ শতাংশ ব্যাংকিং মার্কেট শেয়ার এবং ৩৫ শতাংশ রেমিটেন্সের অংশিদার ইসলামিক ব্যাংকগুলোতে ক্যারিয়ার গঠনের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তবে নিয়োগের ক্ষেত্রে গতানুগতিক পদ্ধতি অনুসরণের কারণে চাকরি-প্রার্থীরা ইসলামী ফাইন্যান্স অধ্যয়নের পরিবর্তে গতানুগতিক পদ্ধতির দিকে বেশি মনোনিবেশ করছেন।

মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ মালয়েশিয়ার ইসলামিক ফাইন্যান্সের অগ্রগতির অভিজ্ঞতা তুলে বলেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একাডেমিক গবেষণার বিষয়বস্তুতে ইসলামিক অর্থনীতি যোগ করা যেতে পারে।

ব্যাংকিং বা অর্থনীতির মূলধারার বিষয়গুলোর পাশাপাশি সোশ্যাল, ইথিক্যাল, গ্রিন সাস্টেইনেবল, অল্টারনেটিভ ফিনান্স, বিভিন্ন সব নামে ইসলামিক ফিনান্স যুক্ত করার সুযোগ আছে। অধ্যাপক মাঈন উদ্দিন ইসলামিক ফাইন্যান্সে লোকবলের চাহিদা এবং যোগানের ওপর গুরুত্ব দেন।

ড. মাঈন উদ্দিনের আলোচনার সূত্র ধরে মাহফুজা খানম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ইসলামিক ফাইন্যান্সের ওপর নতুন বিভাগ করা দীর্ঘ প্রক্রিয়ার ব্যাপার। তবে চাহিদা দৃশ্যমান করা হলে এটা সম্ভব পাবলিক কিংবা প্রাইভেট যে খাতেই হোক। তিনি ইসলামিক ফাইনান্স সেবার ক্ষেত্রে ডেটা সাইন্স, অ্যানালাইটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসহ আধুনিক প্রযুক্তির ব্যাবহারের দিকে আলোকপাত করেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত