৫ দফা দাবিতে বেফাক বোর্ডে কওমি শিক্ষক সমিতির স্মারকলিপি
jugantor
৫ দফা দাবিতে বেফাক বোর্ডে কওমি শিক্ষক সমিতির স্মারকলিপি

  যুগান্তর ডেস্ক  

০১ অক্টোবর ২০২০, ২৩:২৮:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

৫ দফা দাবিতে বেফাক বোর্ডে কওমি শিক্ষক সমিতির স্মারকলিপি

৫ দফা দাবি জানিয়ে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ায় স্বারকলিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি।

বৃহস্পতিবার যাত্রাবাড়ী বেফাক অফিসের সামনে এক মানববন্ধন থেকে এ স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের মহাসচিব হাফেজ মাওলানা আতাউর রহমান আতিকী।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বেফাক একটি স্বতন্ত্র অরাজনৈতিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বেফাকের স্বতন্ত্রতা রক্ষা করে গঠনতান্ত্রিকভাবে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করা প্রয়োজন। কেননা বেফাক হচ্ছে কওমি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অনুভূতির জায়গা।

আমরা আশা করি আগামী ৩ অক্টোবর বেফাকের মজলিশে আমেলার বৈঠকে আমাদের দাবিগুলো পর্যালোচনা করে বাস্তবায়ন করা হবে।

তারা আরও বলেন, বেফাক’কে যদি গঠনতান্ত্রিকভাবে পরিচালিত না করা হয়, কওমি শিক্ষক সমিতি বেফাকভুক্ত মাদ্রাসার শিক্ষকদের নিয়ে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির ৫ দফা দাবি: বেফাককে সকল প্রকার দুর্নীতি মুক্ত করা এবং দুর্নীতিগ্রস্তদের বহিস্কার ও শাস্তির আওতায় আনা।

দুই. বেফাককে সকল প্রকার রাজনৈতিক ব্যক্তি বা দলের প্রভাব থেকে মুক্ত রাখা এবং বেফাককে যেন কোন রাজনৈতিক দলের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে না পারে সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখা।
তিন. বেফাকের মজলিসে আমেলা ও মজলিসে শূরাকে কার্যকর আমেলা ও শূরায় পরিণত করা এবং বেফাকের সব কার্যক্রম গঠনতন্ত্র মোতাবেক পরিচালনা করা।

চার. বেফাকের অফিস ষ্টাফদের নিয়োগ বাতিলের ক্ষেত্রে তাদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদান করা এবং তাদের মানবিক দিক বিবেচনা করে সম্মানজনকভাবে বিদায়ের ব্যবস্থা করা।

পাঁচ. শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নয়নে বেফাকের তত্ত্বাবধানে প্রতিটি বিভাগে শিক্ষা অধিদফতর স্থাপন করার ব্যবস্থা করা।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও জামিয়া রহমানিয়া চিটাগাং রোড মাদ্রাসার মহাপরিচালক ড. মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ উজানভী।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন মুফতি মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী, মুফতি শফিকুল ইসলাম কাশিয়ানী, মাওলানা কবির আহমদ, মাওলানা মুবাশশির হোসাইন, মাওলানা উমর ফারুক চৌধুরী, মাওলানা জাহিদুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা আশরাফুল ইসলাম, মাওলানা ইবরাহীম খলিল, মাওলানা ওয়াহিদুজ্জামান ফরিদপুরী, হাফেজ তারীক্ব মিল্লাত হোসাইন প্রমুখ।

৫ দফা দাবিতে বেফাক বোর্ডে কওমি শিক্ষক সমিতির স্মারকলিপি

 যুগান্তর ডেস্ক 
০১ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
৫ দফা দাবিতে বেফাক বোর্ডে কওমি শিক্ষক সমিতির স্মারকলিপি
ছবি: সংগৃহীত

৫ দফা দাবি জানিয়ে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ায় স্বারকলিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি। 
  
বৃহস্পতিবার যাত্রাবাড়ী বেফাক অফিসের সামনে এক মানববন্ধন থেকে এ স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের মহাসচিব হাফেজ মাওলানা আতাউর রহমান আতিকী।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বেফাক একটি স্বতন্ত্র অরাজনৈতিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বেফাকের স্বতন্ত্রতা রক্ষা করে গঠনতান্ত্রিকভাবে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করা প্রয়োজন। কেননা বেফাক হচ্ছে কওমি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অনুভূতির জায়গা। 

আমরা আশা করি আগামী ৩ অক্টোবর বেফাকের মজলিশে আমেলার বৈঠকে আমাদের দাবিগুলো পর্যালোচনা করে বাস্তবায়ন করা হবে। 

তারা আরও বলেন, বেফাক’কে যদি গঠনতান্ত্রিকভাবে পরিচালিত না করা হয়, কওমি শিক্ষক সমিতি বেফাকভুক্ত মাদ্রাসার শিক্ষকদের নিয়ে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।  

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির ৫ দফা দাবি: বেফাককে সকল প্রকার দুর্নীতি মুক্ত করা এবং দুর্নীতিগ্রস্তদের বহিস্কার ও শাস্তির আওতায় আনা। 

দুই. বেফাককে সকল প্রকার রাজনৈতিক ব্যক্তি বা দলের প্রভাব থেকে মুক্ত রাখা এবং বেফাককে যেন কোন রাজনৈতিক দলের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে না পারে সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখা।  
তিন. বেফাকের মজলিসে আমেলা ও মজলিসে শূরাকে কার্যকর আমেলা ও শূরায় পরিণত করা এবং বেফাকের সব কার্যক্রম গঠনতন্ত্র মোতাবেক পরিচালনা করা। 

চার. বেফাকের অফিস ষ্টাফদের নিয়োগ বাতিলের ক্ষেত্রে তাদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদান করা এবং তাদের মানবিক দিক বিবেচনা করে সম্মানজনকভাবে বিদায়ের ব্যবস্থা করা। 

পাঁচ. শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নয়নে বেফাকের তত্ত্বাবধানে প্রতিটি বিভাগে শিক্ষা অধিদফতর স্থাপন করার ব্যবস্থা করা।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও জামিয়া রহমানিয়া চিটাগাং রোড মাদ্রাসার মহাপরিচালক ড. মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ উজানভী। 

এছাড়া বক্তব্য রাখেন মুফতি মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী, মুফতি শফিকুল ইসলাম কাশিয়ানী, মাওলানা কবির আহমদ, মাওলানা মুবাশশির হোসাইন, মাওলানা উমর ফারুক চৌধুরী, মাওলানা জাহিদুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা আশরাফুল ইসলাম, মাওলানা ইবরাহীম খলিল, মাওলানা ওয়াহিদুজ্জামান ফরিদপুরী, হাফেজ তারীক্ব মিল্লাত হোসাইন প্রমুখ।