সদরঘাটে শ্রমিকদের খাদ্যসামগ্রী দিল বিআইডব্লিউটিএ
jugantor
সদরঘাটে শ্রমিকদের খাদ্যসামগ্রী দিল বিআইডব্লিউটিএ

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২০ এপ্রিল ২০২১, ২৩:৩৩:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সর্বাত্মক লকডাউনে বেকার হওয়া শ্রমিকদের খাদ্যসামগ্রী দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

খাদ্যসামগ্রীর তালিকায় ছিল চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, আলু ও সাবান।

মঙ্গলবার ঢাকা নদীবন্দরে (সদরঘাট) প্রায় ৫০০ শ্রমিককে এসব সামগ্রী দেওয়া হয়। বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক শ্রমিকদের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন।

সরেজমিন দেখা গেছে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শ্রমিকদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। সদরঘাট ভবনের ভেতরে দুই ফুট দূরত্ব রেখে গোল চিহ্ন আঁকা হয়। প্রতিটি গোলাকার চিহ্নে একজন করে শ্রমিক অবস্থান করেন। সেখানে শ্রমিকদের হাতে হাতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ বিষয়ে কমডোর গোলাম সাদেক বলেন, সর্বাত্ম লকডাউনে সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে ঘাটে কাজ করা শ্রমিকেরা বেকার হয়ে পড়েছেন। তাদের আয় বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় তাদের সহযোগিতার অংশ হিসাবে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ ঢাকা নদীবন্দর কর্মকর্তা মো. গুলজার আলী বলেন, সদরঘাটের বেকার শ্রমিক, নৌকার মাঝি ও আশপাশের ভবঘুরে মিলে ৫শ ব্যক্তিকে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণের সময়ে বিআইডব্লিউটিএর সদস্য মো. নূরুল আলম, মো. দেলোয়ার হোসেন ও ড. একেএম মতিউর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) মো. আব্দুল মতিন, পরিচালক (বন্দর) কাজী ওয়াকিল নওয়াজ, প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো. আতাহার আলী সরদার, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) রকিবুল ইসলাম তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সদরঘাটে শ্রমিকদের খাদ্যসামগ্রী দিল বিআইডব্লিউটিএ

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২০ এপ্রিল ২০২১, ১১:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সর্বাত্মক লকডাউনে বেকার হওয়া শ্রমিকদের খাদ্যসামগ্রী দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। 

খাদ্যসামগ্রীর তালিকায় ছিল চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, আলু ও সাবান। 

মঙ্গলবার ঢাকা নদীবন্দরে (সদরঘাট) প্রায় ৫০০ শ্রমিককে এসব সামগ্রী দেওয়া হয়। বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক শ্রমিকদের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন। 

সরেজমিন দেখা গেছে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শ্রমিকদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। সদরঘাট ভবনের ভেতরে দুই ফুট দূরত্ব রেখে গোল চিহ্ন আঁকা হয়। প্রতিটি গোলাকার চিহ্নে একজন করে শ্রমিক অবস্থান করেন। সেখানে শ্রমিকদের হাতে হাতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়। 

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ বিষয়ে কমডোর গোলাম সাদেক বলেন, সর্বাত্ম লকডাউনে সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে ঘাটে কাজ করা শ্রমিকেরা বেকার হয়ে পড়েছেন। তাদের আয় বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় তাদের সহযোগিতার অংশ হিসাবে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ ঢাকা নদীবন্দর কর্মকর্তা মো. গুলজার আলী বলেন, সদরঘাটের বেকার শ্রমিক, নৌকার মাঝি ও আশপাশের ভবঘুরে মিলে ৫শ ব্যক্তিকে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। 

খাদ্যসামগ্রী বিতরণের সময়ে বিআইডব্লিউটিএর সদস্য মো. নূরুল আলম, মো. দেলোয়ার হোসেন ও ড. একেএম মতিউর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) মো. আব্দুল মতিন, পরিচালক (বন্দর) কাজী ওয়াকিল নওয়াজ, প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো. আতাহার আলী সরদার, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) রকিবুল ইসলাম তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন