গুলশানে বাসচাপায় মা নিহত, মেয়ে আহত
jugantor
গুলশানে বাসচাপায় মা নিহত, মেয়ে আহত

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৯ জুন ২০২১, ০০:৪৪:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজধানীর গুলশানে যাত্রীবাহী বাস চাপায় ফৌজিয়া মাহমুদা (৪৫) নামের এক নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন তার মেয়ে বিএফ শাহিন কলেজের ছাত্রী আনিসা (১৭)।

শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে সুবাস্তু নজর ভ্যালি মার্কেটের বিপরীত পাশে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুলশান থানার এসআই আলমগীর হোসেন।

তিনি বলেন, মা ও মেয়ে একসঙ্গে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। এ সময় কুড়িলগামী আসমানী পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস তাদের চাপা দেয়। দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাত ১০টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফৌজিয়াকে মৃত ঘোষণা করে। আহত আনিসা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে বাসের চালক পালিয়ে গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

মা-মেয়েকে হাসপাতালে বহনকারী পথচারী রুবেল বলেন, মা মেয়ে দুজন মিলে মার্কেটে গিয়েছিলেন। মার্কেট থেকে ফেরার পথে তারা বাস চাপার শিকার হন। আহত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

এদিকে দুর্ঘটনার সংবাদ শুনে নিহত ফৌজিয়ার স্বামী দেলোয়ার হোসেন হাসপাতালে ছুটে যান। তিনি জানান, তারা ভাটারা শাহজাদপুর কাঁচাবাজারের বিপরীত পাশে সমতা আলফা গার্ডেনে পরিবার নিয়ে থাকেন।

গুলশানে বাসচাপায় মা নিহত, মেয়ে আহত

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৯ জুন ২০২১, ১২:৪৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজধানীর গুলশানে যাত্রীবাহী বাস চাপায় ফৌজিয়া মাহমুদা (৪৫) নামের এক নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন তার মেয়ে বিএফ শাহিন কলেজের ছাত্রী আনিসা (১৭)।

শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে সুবাস্তু নজর ভ্যালি মার্কেটের বিপরীত পাশে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুলশান থানার এসআই আলমগীর হোসেন।

তিনি বলেন, মা ও মেয়ে একসঙ্গে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। এ সময় কুড়িলগামী আসমানী পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস তাদের চাপা দেয়। দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাত ১০টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফৌজিয়াকে মৃত ঘোষণা করে। আহত আনিসা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করা হয়েছে। তবে বাসের চালক পালিয়ে গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

মা-মেয়েকে হাসপাতালে বহনকারী পথচারী রুবেল বলেন, মা মেয়ে দুজন মিলে মার্কেটে গিয়েছিলেন। মার্কেট থেকে ফেরার পথে তারা বাস চাপার শিকার হন। আহত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

এদিকে দুর্ঘটনার সংবাদ শুনে নিহত ফৌজিয়ার স্বামী দেলোয়ার হোসেন হাসপাতালে ছুটে যান। তিনি জানান, তারা ভাটারা শাহজাদপুর কাঁচাবাজারের বিপরীত পাশে সমতা আলফা গার্ডেনে পরিবার নিয়ে থাকেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন