রাজশাহীর আম খেয়ে ঢাকার ছিন্নমূল ও পথশিশুদের মুখে হাসি
jugantor
রাজশাহীর আম খেয়ে ঢাকার ছিন্নমূল ও পথশিশুদের মুখে হাসি

  রাজশাহী ব্যুরো  

২২ জুন ২০২১, ০০:৫৩:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

‘মধু মাসের মিষ্টি আম, গরীবরাও খাবে ধুমধাম’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় পথশিশু, ছিন্নমূল ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের নিয়ে এক আনন্দমুখর পরিবেশে আম উৎসব পালিত হয়েছে। রাজশাহী ও চাঁদপুর জেলার দুটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবামূলক সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়।

সংগঠন দুটি হচ্ছে, এ স্কুল ফর হিউম্যানিটি ফাউন্ডেশন ও লোটাস-বাড চ্যারিটি ফোরাম। শুধু আম উৎসবের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না সংগঠন দুটি, বিভিন্ন সময়ে অসহায় পথশিশু ও সুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে শিক্ষা সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের আয়োজন করে থাকে।

২০ জুন থেকে দুইদিনব্যাপী আম উৎসব করা হয়। দেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত এক ঝাঁক মেধাবী শিক্ষার্থীরা রাজশাহী জেলার বিভিন্ন বাগান থেকে আম সংগ্রহ করেন। পরে প্রায় একহাজার কেজি আম মিনি ট্রাকযোগে ঢাকায় নিয়ে যায়। বিশেষ করে রাজধানী কমলাপুর, আরামবাগ, জাতীয় শহীদ মিনার, দারুল কুরআন, মডেল মাদ্রাসা, স্বপ্নছোঁয়া পাঠশালা, তাহফিজুল কোরআন মাদ্রাসা ও ডেমরার বিভিন্ন স্থানে বিনামূল্য বিভিন্ন জাতের সুস্বাদু আম বিতরণ করেন স্বেচ্ছাসেবীরা।

আম পেয়ে খুশিতে আত্মহারা পথশিশুরা জানায়, এতগুলা আম কোনো দিনই পাইনি। আমগুলি অনেক মিষ্টি। ভবিষ্যতে আরও আম খেতে চায় স্বেচ্ছাসেবীদের নিকট।

স্বেচ্ছাসেবীরা জানান, ঢাকা শহরের এমন অনেক অসহায় মানুষ রয়েছে যাদের মাথা গোজার ঠাঁইটুকুও নেই। যাদের নিয়মিত দুবেলা খাবার জোটে না। সেই খাবারের জন্য অনেক সংগ্রাম করতে হয়। এসব মানুষের কাছে আমের মত দামী ফল খাওয়াতো স্বপ্নের মতো। সুমিষ্ট আম খাইয়ে হাসি ফুটানোই মূল লক্ষ্য আম উৎসব আয়োজকদের।

রাজশাহীর আম খেয়ে ঢাকার ছিন্নমূল ও পথশিশুদের মুখে হাসি

 রাজশাহী ব্যুরো 
২২ জুন ২০২১, ১২:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘মধু মাসের মিষ্টি আম, গরীবরাও খাবে ধুমধাম’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় পথশিশু, ছিন্নমূল ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের নিয়ে এক আনন্দমুখর পরিবেশে আম উৎসব পালিত হয়েছে। রাজশাহী ও চাঁদপুর জেলার দুটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবামূলক সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়।

সংগঠন দুটি হচ্ছে, এ স্কুল ফর হিউম্যানিটি ফাউন্ডেশন ও লোটাস-বাড চ্যারিটি ফোরাম। শুধু আম উৎসবের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না সংগঠন দুটি, বিভিন্ন সময়ে অসহায় পথশিশু ও সুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে শিক্ষা সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের আয়োজন করে থাকে।

২০ জুন থেকে দুইদিনব্যাপী আম উৎসব করা হয়। দেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত এক ঝাঁক মেধাবী শিক্ষার্থীরা রাজশাহী জেলার বিভিন্ন বাগান থেকে আম সংগ্রহ করেন। পরে প্রায় একহাজার কেজি আম মিনি ট্রাকযোগে ঢাকায় নিয়ে যায়। বিশেষ করে রাজধানী কমলাপুর, আরামবাগ, জাতীয় শহীদ মিনার, দারুল কুরআন, মডেল মাদ্রাসা, স্বপ্নছোঁয়া পাঠশালা, তাহফিজুল কোরআন মাদ্রাসা ও ডেমরার বিভিন্ন স্থানে বিনামূল্য বিভিন্ন জাতের সুস্বাদু আম বিতরণ করেন স্বেচ্ছাসেবীরা।

আম পেয়ে খুশিতে আত্মহারা পথশিশুরা জানায়, এতগুলা আম কোনো দিনই পাইনি। আমগুলি অনেক মিষ্টি। ভবিষ্যতে আরও আম খেতে চায় স্বেচ্ছাসেবীদের নিকট।

স্বেচ্ছাসেবীরা জানান, ঢাকা শহরের এমন অনেক অসহায় মানুষ রয়েছে যাদের মাথা গোজার ঠাঁইটুকুও নেই। যাদের নিয়মিত দুবেলা খাবার জোটে না। সেই খাবারের জন্য অনেক সংগ্রাম করতে হয়। এসব মানুষের কাছে আমের মত দামী ফল খাওয়াতো স্বপ্নের মতো। সুমিষ্ট আম খাইয়ে হাসি ফুটানোই মূল লক্ষ্য আম উৎসব আয়োজকদের।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন