গুলশানে করোনায় মা-ভাই হারিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
jugantor
গুলশানে করোনায় মা-ভাই হারিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০১ আগস্ট ২০২১, ২৩:৫১:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

গুলশানে করোনায় মা-ভাই হারিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

রাজধানীর গুলশানে ভবন থেকে লাফ দিয়ে লতিফুর রহমান (২৬) নামের এক ইংলিশ মিডিয়াম শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এই শিক্ষার্থী কয়েকদিন আগে করোনায় মা ও বড়ভাইকে হারিয়েছেন। পুলিশ বলছে, মানসিক বিষাদ থেকে এই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে গুলশান-২ এর ৬ নম্বর রোডের ১০৪ নম্বর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।লতিফ ‘এ’ লেভেল সম্পন্ন করেছিলেন।

লতিফের মা করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৭ জুলাই মারা গেছেন। তার আগের দিন ২৬ জুলাই বড়ভাই প্রাণ হারান করোনায়।মা ও ভাইয়ের মৃত্যুতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন লতিফুর।মা ও ভাই হারানোর শোক সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন তিনি।

লতিফুরের বাবার বরাত দিয়ে গুলশান থানার এসআই মো. শামীম হোসেন যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি ঘটনাস্থলে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করছেন বলে জানিয়েছেন।তবে তাৎক্ষণিক ঘটনার বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেননি এই পুলিশ কর্মকর্তা।

গুলশানে করোনায় মা-ভাই হারিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০১ আগস্ট ২০২১, ১১:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গুলশানে করোনায় মা-ভাই হারিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর গুলশানে ভবন থেকে লাফ দিয়ে লতিফুর রহমান (২৬) নামের এক ইংলিশ মিডিয়াম শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এই শিক্ষার্থী কয়েকদিন আগে করোনায় মা ও বড়ভাইকে হারিয়েছেন। পুলিশ বলছে, মানসিক বিষাদ থেকে এই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে গুলশান-২ এর ৬ নম্বর রোডের ১০৪ নম্বর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।লতিফ ‘এ’ লেভেল সম্পন্ন করেছিলেন।

লতিফের মা করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৭ জুলাই মারা গেছেন। তার আগের দিন ২৬ জুলাই বড়ভাই প্রাণ হারান করোনায়।মা ও ভাইয়ের মৃত্যুতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন লতিফুর।মা ও ভাই হারানোর শোক সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন তিনি। 

লতিফুরের বাবার বরাত দিয়ে গুলশান থানার এসআই মো. শামীম হোসেন যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি ঘটনাস্থলে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করছেন বলে জানিয়েছেন।তবে তাৎক্ষণিক ঘটনার বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেননি এই পুলিশ কর্মকর্তা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন