রাজধানীতে স্ত্রীকে অপহরণের পর হত্যা
jugantor
রাজধানীতে স্ত্রীকে অপহরণের পর হত্যা

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৮:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি

রাজধানীর ডেমরায় স্ত্রীকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় নিহত আঞ্জুমান আরা মিতুর (২৮) বাবা মো. নুরুল আমিন হাওলাদার সোমবার রাতে ডেমরা থানায় অভিযুক্ত চারজন ও অজ্ঞাত দুই-তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

অভিযুক্ত আসামিরা হলেন— মৃতের স্বামী ডেমরার পূর্ব হাজীনগর মহিলা মাদ্রাসাসংলগ্ন কালাম ভিলার ভাড়াটিয়া ও ঝালকাঠির সদর থানার বংকুড়া গ্রামের মো. আব্দুস সালামের ছেলে মো. কামরুল হাওলাদার, তার সহযোগী ও আপন ভাই ফোরকান, একই বাড়ির ভাড়াটিয়া শহিদুল এবং অজ্ঞাত ঠিকানার ইব্রাহিম।

মামলার পর রাতেই পুলিশ মৃতের স্বামী কামরুল ও দেবর ফোরকানকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার আদালতে পাঠায়।

জানা যায়, ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার বাসস্ট্যান্ড থেকে অপহরণ হন মিতু। খোঁজ না পেয়ে তার বাবা ১৭ সেপ্টেম্বর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

ওই দিনই মিতুর লাশ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানার তাজমহল রোড এলাকার পাশের জমি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। অপহরণের পর পরই মাইক্রোবাসে মিতুকে কৌশলে হত্যা করা হয়।

ডেমরা থানার ওসি খন্দকার নাসির উদ্দিন বলেন, মিতু হত্যার বিষয়টি গ্রেফতারকৃতরাও স্বীকার করেছেন পুলিশের কাছে।

কামরুল গত ৩-৪ বছর ধরে কেমিক্যালের ব্যবসা করছিলেন। ব্যবসা শুরুর পরই তিনি বিভিন্ন মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুললে সংসারে অশান্তি শুরু হয়। তখন তিনি পথের কাঁটা মিতুকে দূর করতে অপহরণের পর হত্যার পরিকল্পনা করেন।

রাজধানীতে স্ত্রীকে অপহরণের পর হত্যা

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর ডেমরায় স্ত্রীকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। 

এ ঘটনায় নিহত আঞ্জুমান আরা মিতুর (২৮) বাবা মো. নুরুল আমিন হাওলাদার সোমবার রাতে ডেমরা থানায় অভিযুক্ত চারজন ও অজ্ঞাত দুই-তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। 

অভিযুক্ত আসামিরা হলেন— মৃতের স্বামী ডেমরার পূর্ব হাজীনগর মহিলা মাদ্রাসাসংলগ্ন কালাম ভিলার ভাড়াটিয়া ও ঝালকাঠির সদর থানার বংকুড়া গ্রামের মো. আব্দুস সালামের ছেলে মো. কামরুল হাওলাদার, তার সহযোগী ও আপন ভাই ফোরকান, একই বাড়ির ভাড়াটিয়া শহিদুল এবং অজ্ঞাত ঠিকানার ইব্রাহিম। 

মামলার পর রাতেই পুলিশ মৃতের স্বামী কামরুল ও দেবর ফোরকানকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার আদালতে পাঠায়।

জানা যায়, ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার বাসস্ট্যান্ড থেকে অপহরণ হন মিতু। খোঁজ না পেয়ে তার বাবা ১৭ সেপ্টেম্বর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। 

ওই দিনই মিতুর লাশ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানার তাজমহল রোড এলাকার পাশের জমি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। অপহরণের পর পরই মাইক্রোবাসে মিতুকে কৌশলে হত্যা করা হয়।

ডেমরা থানার ওসি খন্দকার নাসির উদ্দিন বলেন, মিতু হত্যার বিষয়টি গ্রেফতারকৃতরাও স্বীকার করেছেন পুলিশের কাছে।

কামরুল গত ৩-৪ বছর ধরে কেমিক্যালের ব্যবসা করছিলেন। ব্যবসা শুরুর পরই তিনি বিভিন্ন মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুললে সংসারে অশান্তি শুরু হয়। তখন তিনি পথের কাঁটা মিতুকে দূর করতে অপহরণের পর হত্যার পরিকল্পনা করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন