সিটি করপোরেশনের কর্মী না হয়েও ৩ বছর গাড়ি চালাচ্ছিলেন হানিফ!
jugantor
সিটি করপোরেশনের কর্মী না হয়েও ৩ বছর গাড়ি চালাচ্ছিলেন হানিফ!

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৭ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৪৬:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজধানীর পান্থপথে উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় আহসান কবির খান (৪৫) নিহতের ঘটনায় চালক হানিফকে আটক করা হয়েছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, ডিএনসিসির কর্মী না হয়েও গত তিন বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন ধরনের হালকা ও ভারী যানবাহন চালিয়ে আসছিলেন হানিফ।

শনিবার দুপুরে কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে র্যা বের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আহসান কবির খানকে চাপা দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন হানিফ।

র‌্যাব কর্মকর্তা আরও বলেন, হানিফ গত ৬-৭ বছর ধরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের গাড়ি মেরামত ওয়ার্কশপে মূল মেকানিকের সহযোগী হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। গত তিন বছর ধরে তিনি সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ধরনের হালকা ও ভারী যানবাহন চালাতেন। সর্বশেষ গত এক বছর ধরে তিনি ওই ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক চালানো শুরু করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনের তালিকাভুক্ত কর্মচারী-চালক না হলেও হানিফকে ময়লাবাহী ভারী ডাম্প ট্রাকটি বরাদ্দ দেওয়া হয়। এজন্য তাকে কোনো নির্দিষ্ট বেতন দেওয়া না হলেও, গাড়ির জন্য বরাদ্দকৃত তেল হতে ১৭-২২ লিটার তেল বিক্রিই তার আয়ের উৎস ছিল।

খন্দকার আল মঈন জানান, ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক একটি ভারী যানবাহন, যা চালানোর জন্য পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন হলেও তার নামে হালকা যানবাহন চালানোর একটা ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে।

হানিফের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি।

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর পান্থপথে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা আহসান কবির খান নিহত হন।

সেসময় গাড়িটি চালাচ্ছিলেন হানিফ। পরে শুক্রওবার চাঁদপুরের হাইমচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে হানিফকে গ্রেফতার করে র্যা ব।

নিহত আহসান কবীর প্রথম আলোর সাবেক কর্মী ছিলেন। তিনি দৈনিকটির পেস্টিং বিভাগে কাজ করতেন। কয়েক বছর আগে তিনি চাকরি ছেড়ে অন্য পত্রিকায় চলে যান।

তার আগের দিন বুধবার গুলিস্তানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চাপায় নিহত হয়েছিলেন নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান।

র‌্যাব শুক্রবার নটর ডেম কলেজ ছাত্র নাঈম হাসানের মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক গাড়িচালক হারুন মিয়াকে গ্রেফতার করে। রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সিটি করপোরেশনের কর্মী না হয়েও ৩ বছর গাড়ি চালাচ্ছিলেন হানিফ!

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজধানীর পান্থপথে উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় আহসান কবির খান (৪৫) নিহতের ঘটনায় চালক হানিফকে আটক করা হয়েছে।  

র‌্যাব জানিয়েছে, ডিএনসিসির কর্মী না হয়েও গত তিন বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন ধরনের হালকা ও ভারী যানবাহন চালিয়ে আসছিলেন হানিফ। 

শনিবার দুপুরে কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে র্যা বের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আহসান কবির খানকে চাপা দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন হানিফ।

র‌্যাব কর্মকর্তা আরও বলেন, হানিফ গত ৬-৭ বছর ধরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের গাড়ি মেরামত ওয়ার্কশপে মূল মেকানিকের সহযোগী হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। গত তিন বছর ধরে তিনি সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ধরনের হালকা ও ভারী যানবাহন চালাতেন। সর্বশেষ গত এক বছর ধরে তিনি ওই ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক চালানো শুরু করেন। 

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনের তালিকাভুক্ত কর্মচারী-চালক না হলেও হানিফকে ময়লাবাহী ভারী ডাম্প ট্রাকটি বরাদ্দ দেওয়া হয়। এজন্য তাকে কোনো নির্দিষ্ট বেতন দেওয়া না হলেও, গাড়ির জন্য বরাদ্দকৃত তেল হতে ১৭-২২ লিটার তেল বিক্রিই তার আয়ের উৎস ছিল। 

খন্দকার আল মঈন জানান, ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক একটি ভারী যানবাহন, যা চালানোর জন্য পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন হলেও তার নামে হালকা যানবাহন চালানোর একটা ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে।

হানিফের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি। 

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর পান্থপথে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা আহসান কবির খান নিহত হন। 

সেসময় গাড়িটি চালাচ্ছিলেন হানিফ। পরে শুক্রওবার চাঁদপুরের হাইমচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে হানিফকে গ্রেফতার করে র্যা ব।

নিহত আহসান কবীর প্রথম আলোর সাবেক কর্মী ছিলেন। তিনি দৈনিকটির পেস্টিং বিভাগে কাজ করতেন। কয়েক বছর আগে তিনি চাকরি ছেড়ে অন্য পত্রিকায় চলে যান।

তার আগের দিন বুধবার গুলিস্তানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চাপায় নিহত হয়েছিলেন নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান। 

র‌্যাব শুক্রবার নটর ডেম কলেজ ছাত্র নাঈম হাসানের মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক গাড়িচালক হারুন মিয়াকে গ্রেফতার করে। রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন