টেনেহিঁচড়ে নিল বেপরোয়া বাইক, হাঁটতে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে
jugantor
টেনেহিঁচড়ে নিল বেপরোয়া বাইক, হাঁটতে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২২:৫৩:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

টেনেহিঁচড়ে নিল বেপরোয়া বাইক, হাঁটতে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

রাজধানীর রমনাপার্কের সামনে দ্রুতগতির একটি মোটরসাইকেলের ধাক্কায় তৃষ্ণা সাহা (৫০) নামের এক নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মোটরসাইকেলটিকে জব্দ ও চালককে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার দিকে ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ৫টা ৩৬ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রমনাপার্কের মিন্টু রোডের (মন্ত্রী পাড়া) দিকের গেইট দিয়ে বের হয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন দুই নারী। সে সময় একটি দ্রুতগামী মোটরসাইকেল একজনকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলটির সঙ্গে ওই নারীর কাপড় আটকে যায়। মোটরসাইকেলটি ওই নারীকে ১০-১২ হাত টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন বাইকটি চালকসহ আটক করেন। দ্রুত আহত নারীকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ঢামেকে নিহতের সঙ্গে থাকা নারী তার বান্ধবী সিদ্ধেশ্বরীর বাসিন্দা কল্পনা রানী বলেন, আমরা প্রতিদিন বিকালে রমনাপার্কে হাঁটাহাটি করি। হাঁটাহাটি শেষে বাসায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে দুজনেই রাস্তা পার হচ্ছিলাম। আমি ছিলাম একটু সামনে আর তিনি আমার পেছনে। হঠাৎ শব্দ পেয়ে পেছনে তাকিয়ে দেখি তৃষ্ণাকে মোটরসাইকেলটি টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছে। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তিনি বলেন, তৃষ্ণা সাহার বাসা বিজয় নগর এলাকায়। তার স্বামীর নাম উত্তম সাহা। তিনি দুই মেয়ের জননী ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া যুগান্তরকে বলেন, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করা হয়েছে।

টেনেহিঁচড়ে নিল বেপরোয়া বাইক, হাঁটতে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
টেনেহিঁচড়ে নিল বেপরোয়া বাইক, হাঁটতে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে
বিলাপ করছেন স্বজনরা। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর রমনাপার্কের সামনে দ্রুতগতির একটি মোটরসাইকেলের ধাক্কায় তৃষ্ণা সাহা (৫০) নামের এক নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় মোটরসাইকেলটিকে জব্দ ও চালককে আটক করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার দিকে ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ৫টা ৩৬ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রমনাপার্কের মিন্টু রোডের (মন্ত্রী পাড়া) দিকের গেইট দিয়ে বের হয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন দুই নারী। সে সময় একটি দ্রুতগামী মোটরসাইকেল একজনকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলটির সঙ্গে ওই নারীর কাপড় আটকে যায়। মোটরসাইকেলটি ওই নারীকে ১০-১২ হাত টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন বাইকটি চালকসহ আটক করেন। দ্রুত আহত নারীকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ঢামেকে নিহতের সঙ্গে থাকা নারী তার বান্ধবী সিদ্ধেশ্বরীর বাসিন্দা কল্পনা রানী বলেন, আমরা প্রতিদিন বিকালে রমনাপার্কে হাঁটাহাটি করি। হাঁটাহাটি শেষে বাসায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে দুজনেই রাস্তা পার হচ্ছিলাম। আমি ছিলাম একটু সামনে আর তিনি আমার পেছনে। হঠাৎ শব্দ পেয়ে পেছনে তাকিয়ে দেখি তৃষ্ণাকে মোটরসাইকেলটি টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছে। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তিনি বলেন, তৃষ্ণা সাহার বাসা বিজয় নগর এলাকায়। তার স্বামীর নাম উত্তম সাহা। তিনি দুই মেয়ের জননী ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া যুগান্তরকে বলেন, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন