হাইব্রিড-অনুপ্রবেশকারীদের দলে আনবেন না: আবদুর রাজ্জাক
jugantor
হাইব্রিড-অনুপ্রবেশকারীদের দলে আনবেন না: আবদুর রাজ্জাক

  ডেমরা প্রতিনিধি  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৫০:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপি-জামায়াত ও ভূমিদস্যু-সন্ত্রাসীদের ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটিতে স্থান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড.আবদুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে অতিকথন-উৎসাহীদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু করে দিয়েছেন। অপরাধ করলে আর কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ডিএসসিসির ৭০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আওতাধীন ত্রি-বার্ষিক ইউনিট সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সরফুদ্দিন আহমেদ সেন্টু, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, ঢাকা-৫ আসনের এমপি কাজী মনিরুল ইসলাম মুন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবির, প্রচার সম্পাদক সাইফুদ্দিন চৌধুরী সাগর, দফতর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এফএম শরিফুল আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটির সদস্য নেহরীন মোস্তফা দিশি প্রমুখ।

এর আগে বেলা ১১টায় বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী। এ সময় সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খান মাসুদ ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মোল্লা সজল, ৭০নং ওয়ার্ড কাউন্সিল আতিকুর রহমান আতিক, ৬৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিনসহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডেমরা ইউনিয়ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান হাবু ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল বাশার।

ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, আওয়ামী লীগ টানা তিনবার ক্ষমতায় আছে, এ সুযোগে ক্ষমতার স্বাদ পেতে অনেকে নানা কৌশলে অনুপ্রবেশকারীদের দলে ভিড়িয়েছেন। আগামীতে তাদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ আসলে কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেন, দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে এবং ঢেলে সাজাতে দিন-রাত অবিরাম পরিশ্রম করে যাচ্ছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরা বাংলাদেশের ভোটের ও গণতন্ত্রের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে ভোটের-গণতন্ত্রের অধিকার ফিরিয়ে দিয়ে আজকে বিশ্ব নেত্রী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। দেশের উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, বিদেশে বসে বিএনপির পলাতক নেতা তারেক রহমান দেশের বিরুদ্ধে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করছেন। তারা পিতাও ষড়যন্ত্র করেছিল, কিন্তু আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে পারেনি। বরং আজকে সারা বিশ্বে আওয়ামী লীগের সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে।

খালেদা জিয়া প্রসঙ্গে এসএম কামাল হোসেন বলেন, একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে চিকিৎসা করার সুযোগ দিয়েছেন। চলাফেরার সুযোগ দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকার সময় ২০০৪ সালে শেখ হাসিনাকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করেছিল। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমার নেত্রী শেখ হাসিনাকে রক্ষা করেছেন। বিপরীতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার খালেদা জিয়াকে নিয়ম ভেঙ্গে মানবতার পরিচয় নিয়ে যাচ্ছেন।

অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংগ্রাম করতে করতেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে চলেছেন। বাংলাদেশের জন্য জীবনকে উৎসর্গ করে চলেছেন আজও। তাই শেখ শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এগিয়ে চলবে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে। আর তারই নেতৃত্বে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মধ্যে আওয়ামী লীগ সবচেয়ে বেশি সুসংগঠিত হবে।

দলে অনুপ্রবেশকারী হাইব্রিডদের তিরস্কার করে তিনি বলেন, আমরা আওয়ামী লীগে আর কাউয়া (কাক) চাই না, কারণ হাইব্রিডরা নোংরা কাজের মাধ্যমে দলের অনেক বদনাম করে থাকে।

হাইব্রিড-অনুপ্রবেশকারীদের দলে আনবেন না: আবদুর রাজ্জাক

 ডেমরা প্রতিনিধি 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিএনপি-জামায়াত ও ভূমিদস্যু-সন্ত্রাসীদের ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটিতে স্থান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড.আবদুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে অতিকথন-উৎসাহীদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু করে দিয়েছেন। অপরাধ করলে আর কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ডিএসসিসির ৭০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আওতাধীন ত্রি-বার্ষিক ইউনিট সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সরফুদ্দিন আহমেদ সেন্টু, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, ঢাকা-৫ আসনের এমপি কাজী মনিরুল ইসলাম মুন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবির, প্রচার সম্পাদক সাইফুদ্দিন চৌধুরী সাগর, দফতর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এফএম শরিফুল আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটির সদস্য নেহরীন মোস্তফা দিশি প্রমুখ। 

এর আগে বেলা ১১টায় বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী। এ সময় সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খান মাসুদ ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মোল্লা সজল, ৭০নং ওয়ার্ড কাউন্সিল আতিকুর রহমান আতিক, ৬৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিনসহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডেমরা ইউনিয়ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান হাবু ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল বাশার।

ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, আওয়ামী লীগ টানা তিনবার ক্ষমতায় আছে, এ সুযোগে ক্ষমতার স্বাদ পেতে অনেকে নানা কৌশলে অনুপ্রবেশকারীদের দলে ভিড়িয়েছেন। আগামীতে তাদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ আসলে কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেন, দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে এবং ঢেলে সাজাতে দিন-রাত অবিরাম পরিশ্রম করে যাচ্ছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরা বাংলাদেশের ভোটের ও গণতন্ত্রের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে ভোটের-গণতন্ত্রের অধিকার ফিরিয়ে দিয়ে আজকে বিশ্ব নেত্রী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। দেশের উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, বিদেশে বসে বিএনপির পলাতক নেতা তারেক রহমান দেশের বিরুদ্ধে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করছেন। তারা পিতাও ষড়যন্ত্র করেছিল, কিন্তু আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে পারেনি। বরং আজকে সারা বিশ্বে আওয়ামী লীগের সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে। 

খালেদা জিয়া প্রসঙ্গে এসএম কামাল হোসেন বলেন, একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে চিকিৎসা করার সুযোগ দিয়েছেন। চলাফেরার সুযোগ দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকার সময় ২০০৪ সালে শেখ হাসিনাকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করেছিল। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমার নেত্রী শেখ হাসিনাকে রক্ষা করেছেন। বিপরীতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার খালেদা জিয়াকে নিয়ম ভেঙ্গে মানবতার পরিচয় নিয়ে যাচ্ছেন।

অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংগ্রাম করতে করতেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে চলেছেন। বাংলাদেশের জন্য জীবনকে উৎসর্গ করে চলেছেন আজও। তাই শেখ শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এগিয়ে চলবে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে। আর তারই নেতৃত্বে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মধ্যে আওয়ামী লীগ সবচেয়ে বেশি সুসংগঠিত হবে।

দলে অনুপ্রবেশকারী হাইব্রিডদের তিরস্কার করে তিনি বলেন, আমরা আওয়ামী লীগে আর কাউয়া (কাক) চাই না, কারণ হাইব্রিডরা নোংরা কাজের মাধ্যমে দলের অনেক বদনাম করে থাকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন