সাংবাদিক এমদাদের ওপর হামলা, জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি ক্র্যাবের
jugantor
সাংবাদিক এমদাদের ওপর হামলা, জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি ক্র্যাবের

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:১৮:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

যুবলীগ ঢাকা দক্ষিণের সাবেক সহসভাপতি ও খাদ্য পরিদর্শক মো. খোরশেদুল আলম মাসুদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) সাবেক অর্থ সম্পাদক এমদাদুল হক খানের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।

বুধবার রাতে মগবাজারের পেয়ারাবাগের নিজ বাসায় স্ত্রী সন্তানের সামনে এমদাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার এমদাদ বাদী হয়ে হাতিরঝিল থানায় মামলা করেছেন।
মামলার আসামীরা হলো, মো. খোরশেদুল আলম মাসুদ (৪০) ও অজ্ঞাত আরো ২/৩ জন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, মগবাজারের ৬৩৬ নম্বর বাড়ির ২/বি ফ্ল্যাটটি প্রতি মাসে ১৮ হাজার টাকা ভাড়া ও ৪০ হাজার টাকা অগ্রীম বাবদ চুক্তিতে ৩ বছরের জন্য ফ্ল্যাটে উঠেন। ছয় মাস না পেরোতেই মালিকের স্বামী মাসুদ ফ্ল্যাট ছাড়ার জন্য চাপ দেন।

আহত এমদাদ জানান, খোরশেদ আলম মাসুদ ও তার সহযোগীরা বুধবার রাতে বাসার গ্যারেজে প্রবেশ করেন তার মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেন। পরে মাসুদসহ আরও ২/৩ জন বাসায় প্রবেশ করে। এমদাদের স্ত্রী দরজা খুললে স্ত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। এসময় মাসুদ ও তার সন্ত্রাসীরা এমদাদকে এলোপাতারি কিল-ঘুষি দিয়ে রক্তাক্ত করেন।

এমদাদ বলেন, মাসুদের স্ত্রীরকাছ থেকে আমি তিন বছরের চুক্তিতে বাসা ভাড়া নিয়েছি। কিন্তু হঠাৎ মাসুদ আমাকে বাসা ছেড়ে দেওয়ার জন্য অন্যায় ভাবে চাপ দিতে থাকে। সে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। বিষয়টি নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। জিডির তদন্ত চলছে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আমার উপর আকস্মিক হামলা চালিয়েছে মাসুদ ও তার সহযোগীরা।

হাতিরঝিল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রশিদ জানান, এঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার প্রক্রিয়া চলছে।

সূত্র জানায়, মাসুদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজিসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। এসব ঘটনায় তিনি জেলও খাটেন। ক্যাসিনো কাণ্ডে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। তিনি বর্তমানে টাঙ্গাইলে একটি সরকারী ফার্মে কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে ক্র্যাব সভাপতি মির্জা মেহেদী তমাল ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকুসহ কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দ এমদাদুল হক খানের উপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। পাশাাপাশি ক্র্যাব সদস্যদের নিরাপত্তায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো যত্নশীল হওয়ারও আহবান জানান নেতৃবৃন্দ।

সাংবাদিক এমদাদের ওপর হামলা, জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি ক্র্যাবের

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুবলীগ ঢাকা দক্ষিণের সাবেক সহসভাপতি ও খাদ্য পরিদর্শক মো. খোরশেদুল আলম মাসুদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) সাবেক অর্থ সম্পাদক এমদাদুল হক খানের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। 

বুধবার রাতে মগবাজারের পেয়ারাবাগের নিজ বাসায় স্ত্রী সন্তানের সামনে এমদাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার এমদাদ বাদী হয়ে হাতিরঝিল থানায় মামলা করেছেন। 
মামলার আসামীরা হলো, মো. খোরশেদুল আলম মাসুদ (৪০) ও অজ্ঞাত আরো ২/৩ জন। 

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, মগবাজারের ৬৩৬ নম্বর বাড়ির ২/বি ফ্ল্যাটটি প্রতি মাসে ১৮ হাজার টাকা ভাড়া ও ৪০ হাজার টাকা অগ্রীম বাবদ চুক্তিতে ৩ বছরের জন্য ফ্ল্যাটে উঠেন। ছয় মাস না পেরোতেই মালিকের স্বামী মাসুদ ফ্ল্যাট ছাড়ার জন্য চাপ দেন। 

আহত এমদাদ জানান, খোরশেদ আলম মাসুদ ও তার সহযোগীরা বুধবার রাতে বাসার গ্যারেজে প্রবেশ করেন তার মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেন। পরে মাসুদসহ আরও ২/৩ জন বাসায় প্রবেশ করে। এমদাদের স্ত্রী দরজা খুললে স্ত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। এসময় মাসুদ ও তার সন্ত্রাসীরা এমদাদকে এলোপাতারি কিল-ঘুষি দিয়ে রক্তাক্ত করেন। 

এমদাদ বলেন, মাসুদের স্ত্রীর কাছ থেকে আমি তিন বছরের চুক্তিতে বাসা ভাড়া নিয়েছি। কিন্তু হঠাৎ মাসুদ আমাকে বাসা ছেড়ে দেওয়ার জন্য অন্যায় ভাবে চাপ দিতে থাকে। সে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। বিষয়টি নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। জিডির তদন্ত চলছে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আমার উপর আকস্মিক হামলা চালিয়েছে মাসুদ ও তার সহযোগীরা।

হাতিরঝিল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রশিদ জানান, এঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার প্রক্রিয়া চলছে। 

সূত্র জানায়, মাসুদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজিসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। এসব ঘটনায় তিনি  জেলও খাটেন। ক্যাসিনো কাণ্ডে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। তিনি বর্তমানে টাঙ্গাইলে একটি সরকারী ফার্মে কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন। 

এদিকে ক্র্যাব সভাপতি মির্জা মেহেদী তমাল ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকুসহ কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দ এমদাদুল হক খানের উপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। 

এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। পাশাাপাশি ক্র্যাব সদস্যদের নিরাপত্তায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো যত্নশীল হওয়ারও আহবান জানান নেতৃবৃন্দ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন