বিশ্ব ইজতেমায় গাড়ি পার্কিং ও ডাইভারশন যেভাবে

  অনলাইন ডেস্ক ১০ জানুয়ারি ২০১৮, ১৭:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

ইজতেমা উপলক্ষে ডিএমপির নির্দেশনা

রাজধানীর অদূরে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর পাড়ে শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় সমাবেশ বিশ্ব ইজতেমা। প্রতিবারের মতো এবারও বিশ্ব ইজতেমা দুইটি পর্বে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথম পর্ব আগামী ১২ জানুয়ারি হতে আরম্ভ হয়ে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে আর দ্বিতীয় পর্ব হবে ১৯ জানুয়ারি হতে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সম্মানিত অতিথিবৃন্দসহ দেশের অভ্যন্তরের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি বিশ্ব ইজতেমা প্রান্তরে সমবেত হন।

এ বিপুল সংখ্যক ধর্মপ্রাণ মানুষের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে গাড়ি পার্কিং ও ডাইভারশন নিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কিছু নির্দেশনা দিয়েছে। এ নির্দেশনাসমূহ হলো-

গাড়ি পার্কিং সংক্রান্ত নির্দেশনা:

১। রেইনবো ক্রসিং হতে আব্দুল্লাহপুর হয়ে ধউর ব্রিজ পর্যন্ত এবং রামপুরা ব্রিজ হতে প্রগতি সরণী পর্যন্ত রাস্তা ও রাস্তার পার্শ্বে কোনো যানবাহন পার্কিং করা যাবে না।

২। ইজতেমায় আগত সম্মানিত মুসল্লীদের যানবাহনসমূহ নিম্নবর্ণিত স্থান সমূহে (বিভাগ অনুযায়ী) পার্কিং করা যাবে।

ক) চট্টগ্রাম বিভাগ পার্কিং: গাউসুল আজম এভিনিউ (১৩ নং সেক্টর রোডের পূর্ব প্রান্ত হতে পশ্চিম প্রান্ত হয়ে গরীবে নেওয়াজ রোড)।

খ) ঢাকা বিভাগ পার্কিং: সোনারগাঁও জনপথ চৌরাস্তা হতে দিয়াবাড়ী খালপাড় পর্যন্ত।

গ) সিলেট বিভাগ পার্কিং :উত্তরাস্থ ১২ নং সেক্টর শাহমখদুম এভিনিউ।

ঘ) খুলনা বিভাগ পার্কিং: উত্তরাস্থ ১৬ ও ১৮ নং সেক্টরের খালি জায়গা।

ঙ) রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগ পার্কিং : প্রত্যাশা হাউজিং।

চ) বরিশাল বিভাগ পার্কিং: ধউর ব্রিজ ক্রসিং সংলগ্ন বিআইডব্লিউটিএ ল্যান্ডিং স্টেশন।

ছ) ঢাকা মহানগরী পার্কিং : উত্তরাস্থ শাহজালাল এভিনিউ, নিকুঞ্জ-১ এবং নিকুঞ্জ-২ এর আশপাশের খালি জায়গা।

৩। নির্ধারিত পার্কিং স্থানে মুসল্লীবাহী যানবাহন পার্কিং এর সময় অবশ্যই গাড়ির চালক বা হেলপার গাড়িতে অবস্থান করবেন এবং মালিক ও চালক একে অপরের মোবাইল নম্বর নিয়ে রাখবেন, যাতে বিশেষ প্রয়োজনে তাৎক্ষণিকভাবে পারস্পরিক যোগাযোগ করা যায়।

ডাইভারশন সংক্রান্ত নির্দেশনা:

৪। ডাইভারশন পয়েন্টসমূহ (শুধুমাত্র আখেরী মোনাজাতের দিন আগামী ১৪ জানুয়ারি ও ২১ জানুয়ারি ভোর ০৪.০০ টা হতে):

⇒ মহাখালী ক্রসিং

⇒ হোটেল রেডিসন গ্যাপ

⇒ প্রগতি সরণী

⇒ কুড়িল ফ্লাইওভার লুপ-২

⇒ ধউর ব্রিজ

⇒ বেড়িবাঁধ সংলগ্ন উত্তরা ১৮নং সেক্টরের প্রবেশ মুখ

৫। ডাইভারশন চলাকালীন:

♦ আশুলিয়া হতে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহনসমূহ আব্দুল্লাহপুর না এসে ধউর ব্রিজ ক্রসিং দিয়ে ডানে মোড নিয়ে মিরপুর বেড়িবাঁধ দিয়ে চলাচল করবে।

♦ মহাখালী বাস টার্মিনাল হতে আব্দুল্লাহপুরগামী আন্তঃজেলা বাস, ট্রাক, কভার্ডভ্যানসহ সকল প্রকার যানবাহন মহাখালী ক্রসিং-এ বামে মোড় নিয়ে বিজয় সরণী-গাবতলী দিয়ে চলাচল করবে।

♦ কাকলী, মিরপুর হতে আগত যানবাহনসমূহ এয়ারপোর্টের দিকে না গিয়ে হোটেল রেডিসন গ্যাপ এবং কুড়িল বিশ্বরোডে ইউটার্ন করে বা ফ্লাইওভার হয়ে প্রগতি সরণী দিয়ে চলাচল করবে।

♦ প্রগতি সরণী হতে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহনসমূহ বিশ্বরোড ক্রসিং-এ ইউটার্ন করে বা ফ্লাইওভার দিয়ে কাকলী-মহাখালী রোড ও মিরপুর ফ্লাইওভার দিয়ে চলাচল করবে।

♦ আগামী ১৪ ও ২১ জানুয়ারি, ২০১৮খ্রি. বিমানের অপারেশন্স ও বিমান ক্রু বহনকারী যানবাহন, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গাড়ি ও এ্যাম্বুলেন্স ব্যতিত সকল প্রকার যাবাহনের চালকগণকে বিমানবন্দর সড়ক পরিহার করে বিকল্প হিসেবে মহাখালী, বিজয় সরণী হয়ে মিরপুর-গাবতলী সড়ক ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

♦ বিদেশগামী বা বিদেশ ফেরত যাত্রীদের বিমানবন্দরে আনা-নেয়ার জন্য ট্রাফিক উত্তর বিভাগের ব্যবস্থাপনায় চারটি বড় আকারের মাইক্রোবাস নিকুঞ্জ-১ আবাসিক এলাকার গেইটে ভোর ০৪.০০ টা হতে মোতায়েন থাকবে।

ট্রাফিক সম্পর্কিত যে কোন তথ্যের জন্য প্রয়োজনে সিনিয়র সহকারি পুলিশ কমিশনার (উত্তরা ট্রাফিক জোন ০১৭১৩-৩৯৮৪৯৮) অথবা টিআই (উত্তরা ট্রাফিক জোন ০১৭১১-৩৬৬৫৬১) নম্বরে যোগাযোগ করতে পারবেন। সূত্র: ডিএমপি নিউজ

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্ব ইজতেমা ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter