‘মাদকবিরোধী অভিযানে ক্রসফায়ারে হত্যা রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস’

প্রকাশ : ৩০ মে ২০১৮, ২১:৩২ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ছবি: সংগৃহীত

সরকারের ঘোষিত চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে বিচারবহির্ভূত হত্যা করা হচ্ছে অভিযোগ করে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন বলেছে, এভাবে 'ক্রসফায়ারে হত্যা'সংবিধানের পরিপন্থী এবং একধরনের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসও বটে।

বুধবার ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ ফজলুল করীম মারুফ সংগঠনের মাসিক বৈঠকে এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, সংবিধানের ২৭নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, সব নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী। কিন্তু রাষ্ট্রের চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে এ পর্যন্ত ক্রসফায়ারে নিহত কেউই আইনের আশ্রয় লাভের সুযোগ পায়নি। যা সংবিধান প্রদত্ত মৌলিক অধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন এবং একধরনের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসও বটে।

শেখ ফজলুল করীম মারুফ আরও বলেন, এ ধরনের বিচারবহির্ভূত শাস্তিতে মাদক নির্মূল সম্ভব নয়। এবং মূল হোতারা আড়ালে থেকে যাচ্ছে। এজন্য মাদক নির্মূলে প্রয়োজন আইনের কঠোর প্রয়োগ ও সামাজিক সচেতনতা। তাছাড়া আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে বিচারের ভার তুলে দিলে একটি রাষ্ট্রের বিচারব্যবস্থায় মানুষের আস্থা থাকে না।

মাসিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সহসভাপতি শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম, সেক্রেটারি জেনারেল এম হাসিবুল ইসলাম, জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল এস এম এমদাদুল্লাহ ফাহাদ, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ এম কাওছার আহমাদ, কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মুস্তাকিম বিল্লাহ, কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক নুরুল করিম আকরাম, প্রচার ও যোগাযোগবিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ শরিফুল ইসলাম, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল হক জিয়া, প্রকাশনা সম্পাদক একেএম আব্দুজ্জাহের আরেফী, অর্থ ও কল্যাণ সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুল জলিল প্রমুখ।