কাউন্সিলরের নেতৃত্বে আ.লীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগ
jugantor
কাউন্সিলরের নেতৃত্বে আ.লীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮:২৩:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এনামুল হক ওরফে আবুলের বিরুদ্ধে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দিনকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার রাতে জসিম উদ্দিনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে। তিনি ১৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

এ ঘটনায় বুধবার পল্টন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন তার মেয়ে শিবা আক্তার। ডায়েরি নম্বর ১১২৮।

এতে শিবা আক্তার উল্লেখ করেন, তাকে নিয়ে ফেসবুকে আজেবাজে মন্তব্যের প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরের নির্দেশে আলী রেজা খান, এনামুল হক, নাজমুল হোসাইন, রাশেদুল আলম, শামছুল আলম, শফিউল আজম, মঞ্জুরুল হক, শাহ আলম, এইচ এম রায়হানসহ অজ্ঞাতনামা আরও ছয় থেকে সাতজন জসিম উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। শান্তিনগরের হোয়াইট হাউস রেস্টুরেন্টের ভেতরে মারধরের পর সেখান থেকে দৌড়ে বেরিয়ে আসেন জসিম উদ্দিন। পরে বাইরে এসে আবারও এলোপাতাড়ি কিল ও ঘুষি মেরে জখম করা হয়। এ সময় তার বাবাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়।

জসিম উদ্দিনের মেয়ে শিবা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তার বাবার ওপর তিন দফা হামলা চালিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়েছে। মাটিতে ফেলে বুকের ওপর পা দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। হামলায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে কাকরাইলের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থা গুরুতর দেখে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। বর্তমানে তার বাবা ঢামেকের সিসিইউতে ভর্তি আছেন।

এদিকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ওপর হামলার প্রতিবাদে আজ শান্তিনগর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে এলাকায় ডিজিটাল পোস্টারও টাঙানো হয়েছে।

কাউন্সিলরের নেতৃত্বে আ.লীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগ

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ আগস্ট ২০২২, ০৬:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এনামুল হক ওরফে আবুলের বিরুদ্ধে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দিনকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। 

মঙ্গলবার রাতে জসিম উদ্দিনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।  তিনি ১৩ নম্বর  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। 

এ ঘটনায় বুধবার পল্টন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন তার মেয়ে শিবা আক্তার। ডায়েরি নম্বর ১১২৮।

এতে শিবা আক্তার উল্লেখ করেন, তাকে নিয়ে ফেসবুকে আজেবাজে মন্তব্যের প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরের নির্দেশে আলী রেজা খান, এনামুল হক, নাজমুল হোসাইন, রাশেদুল আলম, শামছুল আলম, শফিউল আজম, মঞ্জুরুল হক, শাহ আলম, এইচ এম রায়হানসহ অজ্ঞাতনামা আরও ছয় থেকে সাতজন জসিম উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। শান্তিনগরের হোয়াইট হাউস রেস্টুরেন্টের ভেতরে মারধরের পর সেখান থেকে দৌড়ে বেরিয়ে আসেন জসিম উদ্দিন। পরে বাইরে এসে আবারও এলোপাতাড়ি কিল ও ঘুষি মেরে জখম করা হয়। এ সময় তার বাবাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়।

জসিম উদ্দিনের মেয়ে শিবা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তার বাবার ওপর তিন দফা হামলা চালিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়েছে। মাটিতে ফেলে বুকের ওপর পা দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। হামলায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে কাকরাইলের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থা গুরুতর দেখে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। বর্তমানে তার বাবা ঢামেকের সিসিইউতে ভর্তি আছেন।

এদিকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ওপর হামলার প্রতিবাদে আজ শান্তিনগর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে এলাকায় ডিজিটাল পোস্টারও টাঙানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন