এক বাসের ধাক্কা, আরেক বাসের চাপায় প্রাণ গেল ব্যবসায়ীর
jugantor
এক বাসের ধাক্কা, আরেক বাসের চাপায় প্রাণ গেল ব্যবসায়ীর

  যাত্রাবাড়ী (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৫৬:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

দুই বাসের বেপরোয়া প্রতিযোগিতায় সড়ক বিভাজকে দাঁড়িয়ে থাকা এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের যাত্রাবাড়ী থানা এলাকার হাসেম রোড মাতুয়াইল ডিপিডিসি অফিসের পাশে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ফারুক হোসেন মানিক (৩৫) রাজধানীর দৈনিক বাংলার মোড় আজাদ সেন্টারে এক্সপোর্ট ইমপোর্টের ব্যবসা করতেন।

ফারুকের গ্রামের বাড়ি লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার পূর্ব চরশিপা গ্রামে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ উল্যাহ। রাজধানীর মাতুয়াইল ৫/৬ ইসলাম নগরে স্ত্রী ও দুই শিশু পুত্র সন্তান নিয়ে থাকতেন তিনি।

পথচারী প্রদীপ জানান, হাসেম রোডের উত্তর পাশ থেকে দক্ষিণ পাশ পার হয়ে সড়ক বিভাজকের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন ফারুক। এ সময় তাসা এক্সক্লুসিভ চাঁদপুর-জ-১১-০০২৯ বাস আরেকটি বাসের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছিল। একটি বাস ফারুককে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। পাল্লা দেওয়া অপর বাসটি তাকে চাপা দিয়ে চলে যায়।

পথচারী প্রদীপ আরও জানায়, ফারুক হোসেন মানিককে ঘাতক বাস চাপা দেওয়ার ৩০ মিনিট পর্যন্তও রাস্তায় পড়েছিলেন। এ সময় হাসপাতালে নেওয়ার জন্য একটি অ্যাম্বুলেন্স বা কোনো একটি গাড়ি ঠিক করে দিতে পথচারীদের তিনি অনুরোধ করছিলেন। এক পর্যায়ে ফারুক সড়কেই মারা যায়।

নিহত ফারুকের স্ত্রী হনুফা আক্তার সাথী যুগান্তরকে বলেন, প্রতিদিন সকাল ৮/৯টার সময় বাসা থেকে বের হয়ে যেত ফারুক। আজ বৃষ্টির কারণে একটু দেরি করে সাড়ে ১০টার সময় বের হয়েছে। দুপুর ১২টায় সংবাদ শুনি আমার মানিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে। আমাদের ৭ বছরের ও ৩ বছরের ফাহাদ ও আহাদ দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

সাথী আরও বলেন, ফারুক ৩ ভাই ৫ বোনের মধ্যে সবার ছোট হলেও সেই সংসারের একমাত্র উপার্জনকারী। এখন আমাদের পরিবারের ও ২ সন্তানের কি হবে?

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে যাত্রাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, লাশ ময়নাতন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনায় জড়িত বাসটি আটক করা হয়েছে।

এক বাসের ধাক্কা, আরেক বাসের চাপায় প্রাণ গেল ব্যবসায়ীর

 যাত্রাবাড়ী (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দুই বাসের বেপরোয়া প্রতিযোগিতায় সড়ক বিভাজকে দাঁড়িয়ে থাকা এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের যাত্রাবাড়ী থানা এলাকার হাসেম রোড মাতুয়াইল ডিপিডিসি অফিসের পাশে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ফারুক হোসেন মানিক (৩৫) রাজধানীর দৈনিক বাংলার মোড় আজাদ সেন্টারে এক্সপোর্ট ইমপোর্টের ব্যবসা করতেন।

ফারুকের গ্রামের বাড়ি লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার পূর্ব চরশিপা গ্রামে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ উল্যাহ। রাজধানীর মাতুয়াইল ৫/৬ ইসলাম নগরে স্ত্রী ও দুই শিশু পুত্র সন্তান নিয়ে থাকতেন তিনি।

পথচারী প্রদীপ জানান, হাসেম রোডের উত্তর পাশ থেকে দক্ষিণ পাশ পার হয়ে সড়ক বিভাজকের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন ফারুক। এ সময় তাসা এক্সক্লুসিভ চাঁদপুর-জ-১১-০০২৯ বাস আরেকটি বাসের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছিল। একটি বাস ফারুককে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। পাল্লা দেওয়া অপর বাসটি তাকে চাপা দিয়ে চলে যায়।

পথচারী প্রদীপ আরও জানায়, ফারুক হোসেন মানিককে ঘাতক বাস চাপা দেওয়ার ৩০ মিনিট পর্যন্তও রাস্তায় পড়েছিলেন। এ সময় হাসপাতালে নেওয়ার জন্য একটি অ্যাম্বুলেন্স বা কোনো একটি গাড়ি ঠিক করে দিতে পথচারীদের তিনি অনুরোধ করছিলেন। এক পর্যায়ে ফারুক সড়কেই মারা যায়।

নিহত ফারুকের স্ত্রী হনুফা আক্তার সাথী যুগান্তরকে বলেন, প্রতিদিন সকাল ৮/৯টার সময় বাসা থেকে বের হয়ে যেত ফারুক। আজ বৃষ্টির কারণে একটু দেরি করে সাড়ে ১০টার সময় বের হয়েছে। দুপুর ১২টায় সংবাদ শুনি আমার মানিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে। আমাদের ৭ বছরের ও ৩ বছরের ফাহাদ ও আহাদ দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে। 

সাথী আরও বলেন, ফারুক ৩ ভাই ৫ বোনের মধ্যে সবার ছোট হলেও সেই সংসারের একমাত্র উপার্জনকারী। এখন আমাদের পরিবারের ও ২ সন্তানের কি হবে?

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে যাত্রাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, লাশ ময়নাতন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনায় জড়িত বাসটি আটক করা হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন