কৃষক লীগ নেতার ওপর হামলার অভিযোগে বিএনপি-আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা
jugantor
কৃষক লীগ নেতার ওপর হামলার অভিযোগে বিএনপি-আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

  মিরপুর প্রতিনিধি   

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৫১:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

আহত কৃষক লীগ নেতা

রাজধানীর মিরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক কৃষক লীগ নেতার ওপর যৌথভাবে হামলার অভিযোগ উঠেছে বিএনপি নেতা বুলবুল মল্লিক ও আওয়ামী লীগ নেতা খলিলের বিরুদ্ধে।

হামলার শিকার মাকসুদুল ইসলাম ঢাকা মহানগর উত্তর কৃষক লীগের সভাপতি ও কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি।

হামলাকারীরা হলেন- পল্লবী থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বুলবুল মল্লিক ও ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান খলিল।

বুধবার গভীর রাতে মিরপুর ১২ নম্বরের কালশীর স্টিল ব্রিজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে খলিল ও বুলবুল মল্লিকসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় একটি মামলা করেন কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুল।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুলের মিরপুর ১২ কালশীর বাউনিয়া মৌজায় ৫১ শতাংশ জমি রয়েছে। তিনি ওই জমিতে টিনশেড ঘর বানিয়ে দেখাশুনা করার জন্য সাদ্দাম নামে এক কেয়ারটেকার নিযুক্ত করেন। কিছুদিন আগে খলিলসহ মামলার অন্য আসামিরা সাদ্দামের কাছে ৫০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এজন্য তিনি পল্লবী থানায় ৩টি জিডি করেন।

বুধবার গভীর রাতে খলিল, বুলবুলসহ মামলার অন্য আসামিরা কেয়ারটেকার সাদ্দামের ওপর হামলা চালিয়ে জায়গা দখলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। সাদ্দাম ঘটনাটি জমির মালিক মাকসুদুলকে জানালে তিনি তার বন্ধু শেখ শওকত ও ফারুক হাসানকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন। ঘটনাস্থলে এসেই হামলার শিকার হন কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুল ও তার বন্ধুরা।

হামলাকারীরা তাকে চাপাতি দিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করেন এবং তার ৩ ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৭ লাখ ৮২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন। এরপর ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল উপস্থিত হয়ে তাদের উদ্ধার করে।

এদিকে একই ঘটনায় কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুলকে প্রধান আসামি করে ৮ জনের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করেন আওয়ামী লীগ নেতা খলিলুর রহমান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পল্লবী থানার এসআই জিতু বলেন, এ ঘটনায় দুইপক্ষই মামলা করেছে। আসামি ধরতে অভিযান চলছে।

কৃষক লীগ নেতার ওপর হামলার অভিযোগে বিএনপি-আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

 মিরপুর প্রতিনিধি  
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আহত কৃষক লীগ নেতা
আহত কৃষক লীগ নেতা

রাজধানীর মিরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক কৃষক লীগ নেতার ওপর যৌথভাবে হামলার অভিযোগ উঠেছে বিএনপি নেতা বুলবুল মল্লিক ও আওয়ামী লীগ নেতা খলিলের বিরুদ্ধে। 

হামলার শিকার মাকসুদুল ইসলাম ঢাকা মহানগর উত্তর কৃষক লীগের সভাপতি ও কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি। 

হামলাকারীরা হলেন- পল্লবী থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বুলবুল মল্লিক ও ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান খলিল। 

বুধবার গভীর রাতে মিরপুর ১২ নম্বরের কালশীর স্টিল ব্রিজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে খলিল ও  বুলবুল মল্লিকসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় একটি মামলা করেন কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুল। 

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুলের মিরপুর ১২ কালশীর বাউনিয়া মৌজায় ৫১ শতাংশ জমি রয়েছে। তিনি ওই জমিতে টিনশেড ঘর বানিয়ে দেখাশুনা করার জন্য  সাদ্দাম নামে এক কেয়ারটেকার নিযুক্ত করেন। কিছুদিন আগে খলিলসহ মামলার অন্য আসামিরা সাদ্দামের কাছে ৫০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এজন্য তিনি পল্লবী থানায় ৩টি জিডি করেন। 

বুধবার গভীর রাতে খলিল, বুলবুলসহ মামলার অন্য আসামিরা কেয়ারটেকার সাদ্দামের ওপর হামলা চালিয়ে জায়গা দখলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। সাদ্দাম ঘটনাটি জমির মালিক মাকসুদুলকে জানালে তিনি তার বন্ধু শেখ শওকত ও ফারুক হাসানকে সঙ্গে  নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন। ঘটনাস্থলে এসেই হামলার শিকার হন কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুল ও তার বন্ধুরা। 

হামলাকারীরা তাকে চাপাতি দিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করেন এবং তার ৩ ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৭ লাখ ৮২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন। এরপর ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল উপস্থিত হয়ে তাদের উদ্ধার করে। 

এদিকে একই ঘটনায় কৃষক লীগ নেতা মাকসুদুলকে প্রধান আসামি করে ৮ জনের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করেন আওয়ামী লীগ নেতা খলিলুর রহমান। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পল্লবী থানার এসআই জিতু বলেন, এ ঘটনায় দুইপক্ষই মামলা করেছে। আসামি ধরতে অভিযান চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন